ধর্ষণ বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের বিভাগীয় সমাবেশের তারিখ ঘোষণা

ধর্ষণ বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের বিভাগীয় সমাবেশের তারিখ ঘোষণা

আজ (৩ নভেম্বর) মঙ্গলবার বিকাল ৪ টায় শাহবাগে ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের একটি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে আগামীকাল ৪ নভেম্বর আশুলিয়া ফ্যান্টাসি কিংডমের সামনে সমাবেশসহ সকল বিভাগে বিভাগীয় সমাবেশের তারিখ ঘোষিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট এর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স।

সাংবাদিক সম্মেলনে বলা হয়, বিচারহীনতার রেওয়াজের মধ্যে সরকার ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করেছে। তাতে কি ধর্ষণ বন্ধ হবে? এই তড়িঘড়ি আইন সংশোধনের বিষয়টি অনেকের কাছেই মনে হয়েছে, ক্রমাগত ধর্ষণ ও বিচারহীনতায় দেশের মানুষ যখন চরমভাবে বিক্ষুব্ধ হয়ে সরকারের দিকে আঙ্গুল তুলেছে, তখন সরকার এই আইন সংশোধনের মাধ্যমে দেখাতে চেয়েছে ধর্ষকদের বিচারের ব্যাপারে তারা খুব উদ্যোগী। এই আইন প্রণয়ন করেও যে তার প্রয়োগ না হলে যে ধর্ষণ বন্ধ করা যাবে না আইন প্রনয়নের পর সারা দেশে ধর্ষণের ভয়াবহতার খবরগুলো দেখলেই বোঝা যায়। তাই এমন পরিস্থিতিতে ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ এর নয় দফা দাবি আদায়ে আমাদের আন্দোলন কর্মসূচী চলবে।


বিভিন্ন বিভাগীয় শহরে এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সমাবেশগুলোর তারিখ:

সাভার- ৪ নভেম্বর, সিলেট- ১৩ নভেম্বর, খাগড়াছড়ি- ১৫ নভেম্বর, চট্টগ্রাম-২৭ নভেম্বর, রংপুর-৩০ নভেম্বর, রাজশাহী- ১ ডিসেম্বর, খুলনা- ৪ ডিসেম্বর, বরিশাল- ৫ ডিসেম্বর, ময়মনসিংহ- ৮ ডিসেম্বর।

এছাড়া ঢাকার পার্শ্ববর্তী শ্রমিক অঞ্চলগুলো এবং ঢাকা শহরের অভ্যন্তরে বিভিন্ন থানায় সমাবেশের কর্মসূচীগুলো পরবর্তীতে জানানো হবে বলে সাংবাদিকদের জানানো হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সাখাওয়াত ফাহাদ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সসাধারণ সম্পাদক রাশেদ শাহরিয়ার, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্রের সংগঠক পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সুনয়ন চাকমা, উদীচী শিল্প গোষ্ঠীর সংগঠক আরিফ নূর, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় ইনচার্জ নিখিল দাস