৬ দফা দাবিতে কুড়িগ্রামে ক্ষেতমজুর সমিতির অবস্থান

ক্ষেতমজুরদের সারা বছর কাজের নিশ্চয়তা ও বন্যার্তদের স্থায়ী পুনর্বাসন সহ ৬ দফা দাবিতে কুড়িগ্রাম সদর, উলিপুর ও রাজারহাট উপজেলা পরিষদের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতি।

বুধবার (২২ জুলাই) দুপুরে এই কর্মসূচি পালন করে ক্ষেতমজুর সমিতির কুড়িগ্রাম সদর, উলিপুর ও রাজারহাট উপজেলা কমিটি।

কুড়িগ্রাম সদরে অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন কমরেড সুব্রতা রায়, আখতারুল ইসলাম রাজু। উলিপুরে ক্ষেতমজুর সমিতির কেন্দ্রীয় সদস্য ও উপজেলা সভাপতি কমরেড দেলওয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ সিংহ বাপ্পা, উপজেলা কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট প্রদীপ কুমার রায়, কমরেড সোলায়মান আলী, কমরেড হামিদুর রহমান বাবু এবং রাজারহাট উপজেলা কার্যালয়ের সামনে কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন কমরেড উপেন্দ্র নাথ রায়, নুর মোহাম্মদ আনসার ও নরেশ রায় প্রমুখ।

এ সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, বিনামুল্য গ্রামে গ্রামে করোনার টেস্ট ও নমুনা সংগ্রহ এবং জেলায় জেলায় আরটি পিসিআর টেস্ট করতে হবে। করোনায় কর্মহীন ক্ষেতমজুরসহ গরিব-দুঃখীদের বিনামূল্যে খাদ্য দিতে হবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, কর্মসৃজন প্রকল্প সকল উপজেলায় চালু করে ক্ষেতমজুরসহ গ্রামীণ মজুরদের কাজের ব্যবস্থা করতে হবে। পল্লী রেশনিং চালু করে গরিব মানুষদের সারা বছর কম দামে চাল, ডাল, তেল, লবন, চিনি দিতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, সকল প্রকার ঋণের কিস্তি আদায় করোনাকাল পর্যন্ত বন্ধ রাখতে হবে। গ্রামীণ বরাদ্দ লুটপাট বন্ধ ও লুটপাটের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূল শাস্তি দিতে হবে।