হেফাজতের তান্ডব ও সরকারের নির্লজ্জ নিরবতায় উদীচীর নিন্দা ও ক্ষোভ

এই সরকার মৌলবাদী গোষ্ঠীর সাথে আপোস করতে গিয়ে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। হেফাজতে ইসলামের মত একটি উগ্র সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর প্রতি সরকার প্রথম থেকেই নতি স্বীকার করে আছে। এই সুযোগে ধর্মান্ধগোষ্ঠী বিভিন্ন সময় তাদের হিংস্র আক্রমণ করে যাচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে আজ (২৯ মার্চ) সোমবার বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সভাপতি ড. সফিউদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক জামসেদ আনোয়ার তপন এক যৌথ বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের তান্ডব ও সরকারের ব্যর্থতার নিন্দা ও ক্ষোভ জানান। একই সাথে সারা দেশে তান্ডবের সাথে যুক্তদের চিহ্নিত করে আইনের আয়তায় এনে শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানান।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, গত ২৮ মার্চ হেফাজতে ইসলাম সারাদেশে হরতাল পালনের নামে রাজপথে এক নারকীয় তান্ডব চালিয়েছে। ঢাল হিসেবে ব্যবহার করেছে ধর্ম ও মাদ্রাসার শিশু শিক্ষার্থীদের। তারা রাস্তায় গাড়ি ভাংচুর, রেল ইস্টেশনে অগ্নিসংযোগ সহ বিভিন্ন সরকারী কার্যালয়ে ভাংচুর করেছে। পুলিশ, সংবাদকর্মীসহ সাধারণ মানুষের উপর হামলা চালিয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ওস্তাদ আলাউদ্দিন খাঁ সঙ্গীত নিকেতন ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে।

এছাড়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের ম্যুরাল ও হিন্দু মন্দির ভাংচুর সহ অগ্নিসংযোগ করেছে।

এইদিকে এমন তান্ডবের পরে ২৪ ঘন্টার বেশি সময় চলে যাবার পরেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়সারা বিবৃতি ছাড়া তেমন কোন ভূমিকা সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হয় নি বলেও সংগঠনটি মনে করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.