হরতালের আগের রাতেই শুরু হামলা-গ্রেপ্তার, সিপিবির নিন্দা

দ্রব্যমূল্য কমানোর দাবিতে আগামীকালের অর্ধদিবস হরতালের আগের রাতেই হামলা, দমন-পীড়ণ ও গ্রেপ্তার শুরু করেছে পুলিশ।

গাইবান্ধায় বাম জোটের মিছিলে পুলিশ হামলা চালায় ও ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় ওয়ারেস সরকার, রানু সরকার, নিলুফার শিল্পীকে গ্রেপ্তার করা হয় বলেও বাম নেতৃবৃন্দ দাবি করেছেন।

এদিকে হরতালের সমর্থনে মাইক প্রচারের সময় ঠাকুরগাঁও এর বালিয়াডাঙ্গীর দবিরুল ইসলাম, মুসলেহ্উদ্দীনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।

এছাড়াও ফরিদপুর, মাগুরাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সমাবেশে ও মিছিলে বাধাদান, মাইক ভাংচুর, ব্যানার ছিনতাই এবং গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, নেত্রকোনাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সিপিবি ও বাম জোটকে মাইক ভাড়া দিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে বলেও জানা যায়।

এসব ঘটনার প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম এবং সাধারণ সম্পাদক কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স আজ এক বিৃবতিতে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আগামীকালের হরতাল কোন দলীয় হরতাল নয়, এ হরতাল সাধারণ মানুষের। ইতোমধ্যে এই হরতালের পক্ষে জনমত দেখে সরকার ভীত হয়ে দমন-পীড়নের পথ বেছে নিয়েছে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, গ্রেপ্তার, হামলা, হুমকি-ধামকি দিয়ে মানুষের ন্যায্য দাবি আদায়ের সংগ্রাম বন্ধ করা যাবে না।

বিবৃতিতে গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তি ও হামলার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানানো হয়।

নেতৃবৃন্দ সকল ভয়ভীতি ও উস্কানি উপেক্ষা করে তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম কমানো ও গ্যাস-বিদ্যুৎ এর দাম বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধের দাবিতে আগামীকাল ২৮ মার্চ সোমবার দেশব্যাপী অর্ধদিবস হরতাল সফল করতে সচেতন দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, হরতালের প্রচার কর্মসূচিতে ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, সিরাজগঞ্জ,চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন জায়গায় দফায় দফায় বাধাকে অগ্রাহ্য করে বামজোটের নেতা কর্মীরা সারাদেশে   সাধারণ জনগনের সমর্থন নিয়ে হরতালের পক্ষে কাজ করে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.