সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাস্তবায়ন ও লাইসেন্সের দাবিতে শ্রমিক সমাবেশ

সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাস্তবায়ন ও লাইসেন্স প্রদানের দাবিসহ ৫ দফা দাবিতে শ্রমিক সমাবেশ ও উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক লালবাগ) বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেছে রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন।

আজ (১৫ জুন ২০২২), বুধবার, সকাল ১১টায় আব্দুল হাকিম মাইজভান্ডারি’র সভাপতিত্বে সেকশন-বেড়িবাঁধে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা আবদুল্লাহ ক্বাফি রতন, রাগীব আহসান মুন্না, রিকশা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম নাদিম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুমন মৃধা, কামরাঙ্গিরচর থানা কমিটির সদস্য জামাল, শহীদুল ইসলাম, আব্দুস সালাম, আরিফ, মহিউদ্দিন প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে শ্রমিকদের একটি মিছিল উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক লালবাগ)’র কার্যালয়ে গিয়ে অবস্থান সমাবেশ করে। এসময় শ্রমিকদের পক্ষ থেকে ৭ জনের একটি প্রতিনিধি দল স্মারকলিপি  নিয়ে উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক লালবাগ) এর সাথে দেখা করে। পরবর্তীতে নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে ডিসি ট্রাফিক লালবাগসহ পুলিশ কর্মকর্তারা শ্রমিকদের অবস্থান সমাবেশে উপস্থিত হয়ে শ্রমিকদের দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস প্রদান করে গাড়ি আটক বন্ধ রাখার ঘোষণা দেন।

এর আগে সমাবেশে বক্তারা বলেন, চলাচলের জন্য সুপ্রিম কোর্টের আদেশ থাকার পরেও ব্যাটারিচালিত যানবাহন আটক করে চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে ট্রাফিক পুলিশ শ্রমিকদের মধ্যে গাড়ি আটক আতঙ্ক তৈরি করেছে। আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন করে এই আতঙ্ক থেকে শ্রমিকদের মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান নেতৃবৃন্দ।

বক্তারা আরও বলেন, সরকার ব্যাটারিচালিত যানবাহনের বিআরটিএ কর্তৃক লাইসেন্স প্রদান না করে এই শ্রমিকদের কষ্টে উপার্জিত অর্থ অসাধু সরকারি কর্মকর্তা ও চাঁদাবাজদের লুটপাট করার সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে। অবিলম্বে লাইসেন্স প্রদান করে চাঁদাবাজী বন্ধ করতে হবে এবং কার্ড ব্যবসার নামে চাঁদাবাজীতে যুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান শ্রমিক নেতারা।

সমাবেশ থেকে বলা হয়, সরকার গরিবের কর্মসংস্থান কেড়ে নিয়ে বাজেটে বনরুটির দাম বাড়ায় আর এসি হোটেলের খাবারের ট্যাক্স মওকুফ করে। এই বাজেট ধনী তোষণ নীতির সরকারের গরিব মারার বাজেট। এই গণবিরোধী নীতি বদল না করলে জনগণ সরকার বদল করে নিজেদের রুটি-রুজির সুরক্ষা নিশ্চিত করবে বলে বক্তারা হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.