সুদানে সেনাবিরোধী বিক্ষোভে নিহত অন্তত ৩

সুদানে এক সামরিক অভ্যুত্থাণের মাধ্যমে সেনাবাহিনী দেশটির ক্ষমতা গ্রহণ করার পর রাজধানী খার্তুমে বিক্ষোভে তিনজন নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

বিক্ষোভ চলাকালে নিরাপত্তা বাহিনী গুলি এবং কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করলে ঐ তিনজন নিহত হয় বলেও খবরে বলা হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক খবরে এসব তথ্য জানানো হয়।

এ নিয়ে এই সপ্তাহে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ১০ জনের বেশি মারা গেছে। সুদানের কর্তৃপক্ষ ইন্টারনেট এবং যোগাযোগের অন্যান্য মাধ্যম বন্ধ রেখেছে।

অপসারিত প্রধানমন্ত্রী আবদালাহ হামদককে আবারো ক্ষমতায় আনার জন্য হাজার হাজার মানুষ রাজধানী খার্তুমসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্ষোভ করেছে গতকাল শনিবার।

খার্তুমে বিক্ষোভকারীদের সুদানের পতাকা হাতে নিয়ে “আমরা সামরিক শাসন চাই না” এই শ্লোগান দিতে দেখা গেছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবশ্য গুলি চালানোর বিষয়টি নাকচ করেছেন। এদিকে বিক্ষোভকারীরা বলছে, অন্তত ১০০জন আহত হয়েছে।

এর আগে গত সোমবার অভ্যুত্থানের নেতা জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ বুরহান বেসামরিক সরকার ভেঙে দেন, রাজনৈতিক নেতাদের বন্দি করেন।

তিনি দেশটিতে জরুরি অবস্থা জারি করেন।

তার পদক্ষেপের পক্ষে সাফাই দিতে যেয়ে তিনি বলেছেন এটা “গৃহযুদ্ধ” এবং রাজনৈতিক হানাহানি বন্ধ করার জন্য এটি করা হয়েছে।

এই অভ্যুত্থানকে নিন্দা জানিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ।

উল্লেখ্য, সুদানে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা ওমর আল-বশিরকে ২০১৯ সালে ক্ষমতাচ্যুত করার পর থেকে বেসামরিক নেতাদের সাথে সেনাবাহিনীর বিরোধ চলছে।

বেসামরিক সরকার ও সেনাবাহিনীর মধ্যে ২০১৯ সালে যে চুক্তি হয়েছিল তাতে সুদানে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য নিয়ে এগুনোর কথা ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.