সিরাজুল ইসলাম মেডিকেলকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা

রাজধানীর মালিবাগে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট, বিপুল পরিমাণ সার্জিক্যাল সামগ্রী উদ্ধার করেছে র‍্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।চিকিৎসা সেবা ব্যবস্থাপনায় নানা অসংগতির কারণে প্রতিষ্ঠানটিকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) দুপুর ১২টায় শুরু হয় অভিযান। অভিযান শেষে বিকাল ৫টার দিকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব উম্মে সালমা তানজিয়া এবং র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

উম্মে সালমা তানজিয়া সাংবাদিকদের বলেন, কোভিড আক্রান্ত রোগীদের যে প্রটোকল মানা উচিত, এই প্রতিষ্ঠানে অভিযানে এসে তারা দেখেছেন কোভিডের প্রটোকল মানা হচ্ছে না। এ ছাড়া মাইক্রোবায়োলজি ল্যাব এবং করোনা ইউনিট একই জায়গায় স্থাপনা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, রোগীদের গুণগত যে সেবা দেওয়া দরকার, তা তারা দিতে পারছে না।

র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, হাসপাতালের মাইক্রো বায়োলজিক্যাল ল্যাবে বিপুল পরিমাণ মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট পাওয়া যায়। হাসপাতালের রোগীদের জন্য ব্যবহৃত নানা সার্জিক্যাল সামগ্রীর মেয়াদ অনেক আগেই শেষ হয়েছে বলে আমরা দেখেছি। ল্যাবের ভেতরের অবস্থাও করুণ। এছাড়াও হাসপাতালের মাইক্রো বায়োলজিক্যাল ল্যাব ও করোনা ইউনিট একই ফ্লোরে অবস্থিত। একটা হাসপাতালের এক ফ্লোরে কখনোই এ দুই ইউনিট রাখতে পারে না। এসব অনিয়মের কারণে তাদের ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, যেসব ভুলত্রুটি আছে তা ৭ দিনের মধ্যে সংশোধনের সময় দেওয়া হয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। না হলে আইনের আশ্রয় নেওয়া হবে। কোভিড-১৯ এর ক্ষেত্রে যেসব নিয়ম, তা না মানা হলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ব্যবস্থা নেবে, প্রয়োজনে বন্ধ করেও দিতে পারে।