সিপিবি বগুড়া জেলার দ্বাদশ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বগুড়া জেলা কমিটির দ্বাদশ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি পদে বীর মুক্তিযোদ্ধা জিন্নাতুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ আমিনুল ফরিদ ও সহ সাধারণ সম্পাদক পদে বীর মুক্তিযোদ্ধা হরি শংকর সাহাকে পুনরায় নির্বাচিত করে সর্বসম্মতিক্রমে ২৩ সদস্য বিশিষ্ট বগুড়া জেলা কমিটি নির্বাচিত করা হয়। একইসাথে ০৯ সদস্য বিশিষ্ট সম্পাদক মণ্ডলী গঠন করা হয়েছে।

কাউন্সিল অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন মার্কসবাদী অন্যতম তাত্ত্বিক সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক এম এম আকাশ এবং অধ্যাপক মোঃ কিবরিয়া।

২৯ জানুয়ারী, শনিবার সকাল ১১ টায় জেলা পরিষদ চত্বরে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বগুড়া জেলা কমিটির দ্বাদশ সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য কমরেড এম. এম. আকাশ।

জাতীয় সঙ্গীত, জাতীয় ও দলীয় পতাকা এবং বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়। উদ্বোধন ঘোষণার পর উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর শিল্পী বৃন্দ গণসংগীত পরিবেশন করেন।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড জিন্নাতুল ইসলাম জিন্নার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির মার্কসবাদী তাত্বিক অধ্যাপক এম.এম.আকাশ, পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম সদস্য অধ্যাপক মোঃ কিবরিয়া।

এছাড়া আরও বক্তব্য রাখেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক কমরেড হাসান আলী শেখ। উদ্বোধন অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি বগুড়া জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোঃ আমিনুল ফরিদ।

অধ্যাপক এম. এম. আকাশ বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্বপ্ন এবং আকাঙ্খার উল্টোপথে দেশ পরিচালিত হচ্ছে, অসৎ আমলা, লুটেরা ব্যবসায়ী এবং অসৎ রাজনীতিবীদ দেশ পরিচালনা করছে। গণতন্ত্রহীনতায় দেশ চলছে, ভোটাধিকার নির্বাসনে। ঘুষ, দুর্নীতি, দখলদারিত্ব, টেন্ডারবাজী, নারী নিপিড়ন, ভূমিদস্যুতা ব্যাপকভাবে বেড়ে গেছে, জামাত -শিবির হেফাজতের অপশক্তির উথ্যান প্রতিহত ছাড়া বিকল্প নেই। লুটেরা সমাজ ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, দুঃশাসন হটাও, ব্যবস্থা বদলাও, বিকল্প গড়ো, এই লক্ষ্য নিয়ে জোরদার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। গ্রাম -শহরের গরীব মেহনতী মানুষের মধ্যে শক্তিশালী কমিউনিস্ট পার্টি গড়ে তুলতে হবে। নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে লড়াই, সংগ্রাম, আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। লড়াই, সংগ্রাম, আন্দোলন ছাড়া শক্তশালী কমিউনিস্ট পার্টি গড়ে উঠবেনা।

নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশ এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করেছ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিপরীতে দেশ পরিচালিত হচ্ছে।

সাম্রাজ্যবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, লুটপাটতন্ত্র ও গণতন্ত্রহীনতা এই চার শত্রুর বিরুদ্ধে নিরবিচ্ছিন্ন লড়াই পরিচালনার আহবান জানান বক্তারা।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.