সাহেদ ও স্বাস্থ্যের ৪ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

লাইসেন্সের মেয়াদ না থাকার পরও করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ ও চিকিৎসার জন্য চুক্তি করে সরকারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঢাকা-১ এ সংস্থাটির সংস্থাটির উপ-পরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী মামলাটি করেছেন বলে জানিয়েছেন কমিশনের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।

সাহেদ ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সাবেক পরিচালক আমিনুল হাসান, উপ-পরিচালক (হাসপাতাল-১) ডা. মো. ইউনুস আলী, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল-১) ডা. মো. শফিউর রহমান এবং গবেষণা কর্মকর্তা ডা. মো. দিদারুল ইসলাম।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, আসামিরা অন্যায়ভাবে লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে পরস্পরের যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে লাইসেন্স নবায়নবিহীন রিজেন্ট হাসপাতালকে ডেডিকেটেড কোভিড হাসপাতালে রূপান্তর করেছেন।

মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং (গড়ট) সম্পাদন ও সরকারি প্রতিষ্ঠান নিপসমের ল্যাবে ৩ হাজার ৯৩৯ জন কোভিড রোগীর নমুনা বিনামূল্যে পরীক্ষা করার কথা থাকলেও তারা প্রতিটি টেস্ট বাবদ সাড়ে ৩ হাজার করে মোট ১ কোটি ৩৭ লাখ ৮৬ হাজার ৫০০ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। এছাড়াও আরও কয়েকটি আভিযোগ আনা হয়েছে মামলাটিতে।