”কমরেড ফরহাদের প্রদর্শিত পথেই দেশের মানুষের মুক্তি ঘটবে”

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, দেশ বর্তমানে ঘোরতর অমাবশ্যায় ডুবে গেছে। আদর্শের রাজনীতিকে সমুন্নত রাখার ওপর নির্ভর করে মানব সমাজ অগ্রসর হবে কি না।

তিনি বলেন, সততা ও আদর্শবাদী রাজনীতিকে জাগ্রত করার জন্য কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদকে স্মরণ করা জরুরি।

সিপিবি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সাবেক সংসদ সদস্য কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের ৩২তম মৃত্যুবার্ষিকীর আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, কমরেড ফরহাদ ছিলেন বাষট্টির শিক্ষা আন্দোলনের মস্তিষ্ক। দেশের মেহনতি, শ্রমিক, ছাত্র, কৃষক-ক্ষেতমজুরদের অধিকার আদায়ের আন্দোলনের তিনি ছিলেন অন্যতম প্রধান নেতা। ৭১-এ মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি ন্যাপ-কমিউনিস্ট পার্টি-ছাত্র ইউনিয়নের গেরিলা বাহিনীর প্রধান সংগঠক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষের সার্বিক মুক্তির জন্য বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার আমূল পরিবর্তন সাধন করতে হবে। কমরেড ফরহাদ সমাজ বিপ্লবের যে পথে বাংলাদেশকে নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন সে পথেই আমাদের হাটতে হবে। কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের প্রদর্শিত পথেই বাংলাদেশের মানুষের মুক্তি ঘটবে।

বুধবার (৯ অক্টোবর) বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ মুক্তিভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে সিপিবি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড মো. শাহ আলম এবং ঢাকা কমিটির সভাপতি মোসলেহউদ্দিন। উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষ্মী চক্রবর্তী, আবদুল্লাহ ক্বাফি রতন, অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন, সম্পাদক আহসান হাবিব লাবলু। সভা পরিচালনা করেন সিপিবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাজ্জাদ জহির চন্দন।

স্মরণ সভায় কমরেড শাহ আলম বলেন, সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িকতা নির্ভর অতীতের লুটেরা শাসকদের কারণে ছাত্র রাজনীতি বার বার কলুষিত হয়েছে।

তিনি বলেন, বর্তমান রাষ্ট্র একটি নিপীড়নমূলক রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কমরেড ফরহাদ ছাত্র রাজনীতি যাতে কলুষিত না হয়ে আন্দোলনের ধারায় অগ্রসর হয়, এ ব্যাপারে তিনি বিচক্ষণ সিদ্ধান্ত নিতেন।

স্মরণসভার শুরুতে কমরেড মোহাম্মদ ফরহাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে কিছুক্ষণ নীরবতা পালন করা হয়। কমরেড ফরহাদের মৃত্যুবার্ষিকীতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি ছাড়াও নিজ এলাকা পঞ্চগড়ের বোদাসহ দেশব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করা হয়।

সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে তাঁর সমাধিতে সিপিবি, বিভিন্ন সংগঠন ও ব্যক্তির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.