লকডাউনে কারখানা চালু রাখা চরম দায়িত্বহীনতা -গার্মেন্টস শ্রমিক টিইউসি

সরকার ঘোষিত ‘কঠোর লকডাউনে’ কল-কারখানা চালু রেখে শ্রমিকদের জীবনকে মারাত্মক ঝুঁকির মধ্যে নিমজ্জিত করায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র।

একইসাথে অবিলম্বে সকল শ্রমিকদের টিকা প্রদান ও ঝুঁকি ভাতা প্রদানের দাবি জানায় সংগঠনটি।

আজ বৃহস্পতিবার সংগঠনের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নেতৃবৃন্দ এসব কথা জানান।

গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র’র সভাপতি অ্যাড. মন্টু ঘোষ ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন আজ এক বিবৃতিতে বলেন, কঠোর লকডাউনে সরকারি-বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বিজিএমইএ-এর আবদার অনুযায়ী কারখানা খোলা রাখা হয়েছে অথচ এখন অদ্যাবধি শ্রমিকদেরকে টিকা প্রদান করা হয়নি।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, গার্মেন্টস মালিকরা বিশ্ববাজার প্রতিযোগিতা ও জাতীয় অর্থনৈতিক গুরুত্বকে উল্লেখ করে যখনই সরকারের নিকট যে দাবিই করেছেন তখনই সরকার সে দাবি পূরণ করেছে। কিন্তু শ্রমিকদের ন্যায্য দাবিকে সব সময় উপেক্ষা করা হয়েছে। সস্তা শ্রমের উপর ভিত্তি করা এসকল মালিকরা ও তাদের সরকার শ্রমিকদের বাঁচিয়ে রাখার ন্যূনতম ব্যবস্থার বিষয়টি বিবেচনায় নেয়নি।

অতীতের ন্যায় এবারও শ্রমিকদের চরম ঝুঁকির মধ্যে নিমজ্জিত করে মুনাফা করাটা অমানবিক দায়িত্বহীন আচরণ যা এই শিল্পকেও ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেন নেতৃবৃন্দ।

এমতাবস্থায় জাতীয় স্বার্থে শ্রমিকদের জীবন ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে করোনা টিকা ও ঝুঁকি ভাতার দাবি জানানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.