লংমার্চে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে নিউইয়র্কে সমাবেশ

ধর্ষণ ও বিচারহীনতা বিরোধী ঢাকা-নোয়াখালী লংমার্চে অংশগ্রহণকারীদের ওপর ফেনীতে পুলিশি পাহারায় সরকার দলীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগ সন্ত্রাসীদের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এবং অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে নিউইয়র্ক এ বসবাসরত প্রগতিশীল বাঙালীদের বিভিন্ন সংগঠন বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

গত ১৭ অক্টোবর, শনিবার বিকাল ৫টায় ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরূদ্ধে বাংলাদেশ ব্যানারে নিউইয়র্ক এর জ্যাকসন হাইট ডাইভারসিটি প্লাজায় এক প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে লংমার্চে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবী জানান। তারা সেখানে মদদদাতা পুলিশের বিরূদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান। অবিলম্বে ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অপসারণেরও দাবী জানান তারা।

প্রোগ্রেসিভ ফোরাম এর অর্থ সম্পাদক সাবেক ছাত্রনেতা জাকির হোসেন বাচ্চু এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন প্রোগ্রেসিভ ফোরাম ইউএসএ এর সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা খোরশেদেুল ইসলাম, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী যুক্তরাষ্ট্র সংসদ এর সহসভাপতি, লেখক ও কলামিষ্ট বীরমুক্তিযোদ্ধা সুব্রত বিশ্বাস, বীরমুক্তিযোদ্ধা কাসেম আলী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল বারী, সাবেক ছাত্রনেতা ও প্রোগ্রেসিভ ফোরাম এর সাধারন সম্পাদক আলীম উদ্দিন, মহিলা পরিষদ, যুক্তরাষ্ট্র এর সাধারন সম্পাদক নারীনেত্রী সুলেখা পাল, গণমাধ্যম কর্মী সঞ্জীবন সরকার, গণমাধ্যম কর্মী কানু দত্ত, উদীচী যুক্তরাষ্ট্র সংসদ প্রচার সম্পাদক আশীষ রায়, সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা হিরু চৌধুরী, শারমিন সুলতানা, আসমা বেগম, রাফী চৌধুরী প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা অবিলম্বে দেশে ধর্ষণ ও বিচারহীনতার বিরূদ্ধে আন্দোলনকারীদের ৯ দফা দাবী মেনে নেয়ার জন্য সরকারকে আহ্বান জানান। বক্তারা হামলা করে আন্দোলন বন্ধ করার নেতিবাচক কৌশল থেকে বিরত থাকার জন্য সরকার ও সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের সাবধান করে দেওয়ার ক্তহাও বলেন। তা না হলে এর ফলাফল সরকারের জন্য মোটেও শুভ হবে না বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

আগামী ১৯ অক্টোবর, বিকেল ৫টায় নিউইয়র্ক এর জ্যামাইকা ১৬৯ স্ট্রীট এ পরবর্তী প্রতিবাদ সমাবেশ এর কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়।