মোরালেসের সমর্থকদের বিক্ষোভে এলোপাতাড়ি গুলি, নিহত ৫

বলিভিয়ার নির্বাসিত সাবেক প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেসের সমর্থকদের বিক্ষোভে গুলি চালিয়েছে পুলিশ। এতে পাঁচজন নিহত ও অনেকেই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তবে নিহতের খবর নিশ্চিত করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

এতে দেশের স্থিতিশীলতা ফেরাতে বড় প্রতিকূলতার মুখে পড়তে যাচ্ছে অন্তবর্তীকালীন সরকার। শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) মোরালেসের সমর্থকদের বিক্ষোভে নিরাপত্তা বাহিনী গুলিচালালে এ ঘটনা ঘটে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। মেক্সিকোয় নির্বাসিত মোরালেসের ফিরে আসার দাবি জানাচ্ছিলেন তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিক্ষোভকারীদের দিকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়েছে পুলিশ। তারা মেক্সিকোয় নির্বাসিত মোরালেসের ফিরে আসার দাবি জানাচ্ছিলেন। ইমাটেরিও কোলক স্যানচিজ নামের এক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী বলেন, তিনি বেশ কয়েকজন বিক্ষোভকারীর মরদেহ দেখেছেন। পুলিশের গুলিতে তারা নিহত হয়েছেন। একজন চিকিৎসক জানিয়েছেন, শুক্রবার নিহতদের বেশিরভাগই সাকাবা শহরের বাসিন্দা।

এদিকে বলিভিয়ার অন্তবর্তীকালীন সরকারকে একনায়ক বলে আখ্যা দিয়ে মোরালেস এক টুইটার বার্তায় লিখেছেন, বিক্ষোভকারীদের ওপর ব্যাপক হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছে। শুক্রবার বিবিসিকে মোরালেস বলেন, নির্বাচন নিয়ে আমার বিরুদ্ধে আনতে পারে এমন কোনও বাস্তব অভিযোগ নেই। এসময় তিনি অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট জেনাইন আনেজের বিষয়ে বলেন, আমি বলিভিয়া ফিরলে হয়ত তার বিরুদ্ধে মামলা করব।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সাল থেকে বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় ছিলেন মোরালেস। দেশটির আদিবাসী জনগোষ্ঠী থেকে নির্বাচিত হওয়া প্রথম প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। মূলত বাম ধারার রাজনীতির ধারক মোরালেস দেশটির দরিদ্র জনগোষ্ঠীর কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় ছিলেন। পাশাপাশি মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে নিজের অবস্থানের কারণেও জনপ্রিয়তা তুঙ্গে ছিলেন মোরালেস।

Leave a Reply

Your email address will not be published.