মালিতে অভ্যুত্থান পরবর্তী প্রেসিডেন্ট গোইটা

শুক্রবার মালির শীর্ষ আদালত জানায় দেশে নেতৃত্বের সর্বোচ্চ আসনে, অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট পদে বসবেন গোইটা৷ ‘‘অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট হিসাবে রাষ্ট্রের প্রধান” হবেন গোইটা এবং ‘‘রাষ্ট্রের ক্ষমতা হস্তান্তর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া নিশ্চিত” করবেন তিনি, জানায় আদালত৷

আজ (২৯ মে) শনিবার ডিডব্লিউ বাংলার এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, এর আগে, গত বছর আগস্টে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম বুবাকার কেইটার বিরুদ্ধে সামরিক অভ্যুত্থানেও নেতৃত্বে ছিলেন গোইটা৷ অভ্যুত্থানের আগে, তিনি দেশটির উপ-রাষ্ট্রপতি ছিলেন৷ সেই সময় প্রেসিডেন্ট হন সদ্য অপসারিত বাহ এন-দাও৷ সোমবার গোইটার নির্দেশে এন-দাও ও প্রধানমন্ত্রী মোক্তার ওউয়ানে গ্রেপ্তার হন৷

বুধবার গ্রেপ্তার হওয়া দুই নেতাই পদত্যাগ করেন ও মুক্তি পান৷

এদিকে এন’দাও ও ওউয়ানের মুক্তিকে সাধুবাদ জানিয়েছে রাশিয়া৷ এছাড়া, দেশটির বিভিন্ন রাজনৈতিক গোষ্ঠীর সাথে আলোচনা করার পরামর্শ দিয়েছে রাশিয়া৷

শুক্রবার রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘‘মালিতে সংহতি ও স্থিতিশীলতার পরিবেশ আনতে আমরা সব রাজনৈতিক গোষ্ঠীদের আলোচনার মাধ্যমে সমাধান বেছে নিতে আহ্বান জানাচ্ছি৷”

মালির পরিস্থিতিকে খতিয়ে দেখছে বলেও জানিয়েছে তারা৷

প্রসঙ্গত, সোভিয়েত যুগ থেকেই আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে রাশিয়ার প্রভাব রয়েছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.