মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেনের প্রথম বিদেশ সফর

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তার প্রথম আনুষ্ঠানিক বিদেশ সফর শুরু করেছেন।

ট্রাম্প আমলের শীতল সম্পর্ক দূর করতে আট দিনের ইউরোপ সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন৷

ব্রিটেন, ন্যাটো, ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুটিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে জানা গেছে।

বার্তা সংস্থা এএফপি’র এক প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়।

বুধবার ওয়াশিংটন থেকে রওয়ানা হয়ে বাইডেন সবার আগে ব্রিটেনের লন্ডনে পা রেখেছেন৷

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সেখানে নতুন একটি ‘আটলান্টিক সনদের’ বিষয়ে একমত হতে তিনি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সাথে সাক্ষাত করবেন।

১৯৪১ সালে উইনস্টন চার্চিল এবং ফ্রাঙ্কলিন রুজভেল্টের মধ্যে যে চুক্তি হয়েছিল, এটি তারই একটি আধুনিক সংস্করণ।

আগের ওই চুক্তিতে জলবায়ু পরিবর্তন ও সুরক্ষা বিষয়ক চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ ছিল। আট দিনের ইউরোপীয় সফরের সময় বাইডেন উইন্ডসর ক্যাসলে রানির সাথে দেখা করবেন, জি-৭ নেতাদের বৈঠকে যোগ দেবেন এবং প্রেসিডেন্ট হিসাবে প্রথম নেটোর সম্মেলনে অংশ নেবেন।

এই সফরের শেষে বাইডেনের জেনেভায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে সাক্ষাত করার কথা রয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন যে, প্রেসিডেন্ট হিসাবে প্রথম বিদেশ সফরের প্রতিটি পর্যায়ে তিনি পরিষ্কার করতে চেয়েছেন যে “যুক্তরাষ্ট্র ফিরে এসেছে এবং বিশ্বের গণতান্ত্রিক দেশগুলো এক হয়ে সবচেয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করবে, যা আমাদের ভবিষ্যতের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।”

এছাড়াও আট দিনের ইউরোপ সফরের আগে ওয়াশিংটন পোস্ট সংবাদপত্রে বাইডেন নিজের পররাষ্ট্র নীতির রূপরেখা তুলে ধরেন৷ বিশেষ করে মহামারির কারণে বিশ্বজুড়ে অনিশ্চয়তার মুখে তার ইউরোপ সফর সহযোগীদের প্রতি আমেরিকার অঙ্গীকার আবার জোরালো করবে বলে আশা প্রকাশ করেন৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.