ভোটগ্রহণ চলছে, ভোটারদের উপস্থিতি কম

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে  শনিবার সকাল ৮ টা থেকে। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ভোট শুরুর প্রায় ৪ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও বেশিরভাগ ভোটকেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে।

রাজধানীর ফার্মগেটে অবস্থিত তেজগাঁও কলেজ কেন্দ্রে সকাল সাড়ে ১০টার দিকেও ভোটার উপস্থিতি কম লক্ষ্য করা গেছে।

মিরপুর ১০ নং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘুরে দেখা যায় বেলা সোয়া ১১টাতেও ভোটার উপস্থিতি খুবই কম।

অল্প কিছু সংখ্যক ভোটার যারা কেন্দ্র গুলোতে  আসছেন, তারা ভোট দিতে পারছেন।

প্রথমবারের মতো ঢাকা সিটি নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশন বলছে, নির্বাচন নিয়ে অতীতে নানা অনিয়মের অভিযোগ থেকে রেহাই পেতেই ইভিএমে ভোটের আয়োজন করা হয়েছে।

দুই সিটির মেয়র পদে ইসির নিবন্ধিত ৯টি রাজনৈতিক দলের ১৩ জন প্রার্থী লড়াইয়ে রয়েছেন। তবে মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপি প্রার্থীরা। উত্তরে ৬ জন এবং দক্ষিণে ৭ জন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উত্তর সিটির ৬ মেয়র প্রার্থী হলেন- আওয়ামী লীগের মো. আতিকুল ইসলাম (নৌকা), বিএনপির তাবিথ আউয়াল (ধানের শীষ), বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র ডা. আহাম্মদ সাজেদুল হক রুবেল(কাস্তে), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের শেখ মো. ফজলে বারী মাসউদ (হাতপাখা), পিডিপির শাহীন খান (বাঘ)ও   এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান (আম)।এই সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলরের ৫৪টি পদে ২৫১ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের ১৮টি পদে ৭৭ জন লড়ছেন।

দক্ষিণে মেয়র পদে ৭ প্রার্থী হলেন- আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস (নৌকা), বিএনপির ইশরাক হোসেন (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন (লাঙ্গল), ইসলামী আন্দোলনের মো. আবদুর রহমান (হাতপাখা), এনপিপির বাহরানে সুলতান বাহার (আম), বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আকতার উজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লা (ডাব) ও গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন (মাছ)। দক্ষিণ সিটিতে সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলরের ৭৫টি পদে ৩২৭ জন এবং সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরের ২৫টি পদে ৮২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। উত্তর সিটিতে (ডিএনসিসি) ৫৪টি ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৩০ লাখ দশ হাজার ২৭৩ জন। দক্ষিণ সিটিতে (ডিএসসিসি) ৭৫ ওয়ার্ডে ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ ভোটার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.