ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবিতে আরও ১ শিশুর লাশ উদ্ধার, মোট মৃত্যু ২২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার লইসকা বিলে নৌকাডুবির ঘটনায় আজ শনিবার সকালে আরও একটি শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে ওই ঘটনায় ২২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল সার্ভিস বিভাগ থেকে আজ এসব তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে এখনো দুর্ঘটাস্থলে অবস্থান নিয়েছে শত শত মানুষ। নিখোঁজ স্বজনের অপেক্ষায় তারা সেখানে ভিড় করেছেন।

এর আগে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যেবেলায় শতাধিক যাত্রীবাহী নৌকাটি একটি মালবাহী নৌযানের ধাক্কা লেগে নিমজ্জিত হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, নিমজ্জিত নৌকাটির ভেতরে আর কারও মৃতদেহ নেই। তবে নিখোঁজ থাকার তথ্য থাকলে তাদের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানানো হয়েছে।

তবে অপেক্ষারত স্বজনদের সাথে কথা বলে জানা গেছে এখনো অন্তত ৩০ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার বিকালে সাড়ে চারটার দিকে চম্পকনগর ঘাট থেকে ১৫০ জনের বেশি যাত্রী নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশ্যে ট্রলারটি রওনা হয়।

সন্ধ্যা ছয়টার দিকে বিজয়নগরে লইছকা বিলে বালুবাহী একটি স্টিলের নৌকার সঙ্গে যাত্রীবাহী নৌকাটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। নৌকার পেছনে থাকা আরেকটি বালুবাহী ট্রলার ছিল, সেটিও এই নৌকাকে সজোরো ধাক্কা দিলে যাত্রীবাহী নৌকাটি উল্টে ডুবে যায়।

খবর পেয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস। মধ্যরাতে সেটি স্থগিত করা হলেও শনিবার সকাল থেকে আবার শুরু করা হয়েছে।

এদিকে যাত্রীবাহী নৌকায় ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা হচ্ছিল বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন।

এই ঘটনায় সাতজনকে আসামী করে বিজয়নগর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, যাদের মধ্যে বালুবাহী ট্রলারের চালক ও মালিক রয়েছেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.