‘বিধিনিষেধ’ শিথিল হচ্ছে ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত

আগামী ১৫ জুলাই (বৃহস্পতিবার) থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত চলমান ‘বিধিনিষেধ’ শিথিল করা হবে বলে জানিয়েছে সরকার। ঈদকে সামনে রেখে এ ধরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

তবে ২৩ জুলাই থেকে আবারও কঠোর বিধিনিষেধ জারি হবে বলেও জানা গেছে।

এ বিষয়ে আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

সরকারি তথ্য বিবরণীতে এসব কথা জানানো হয়েছে।

সরকারি সূত্রগুলো বলছে, বিধিনিষেধ শিথিল করার সময়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব ধরনের গণপরিবহন এবং শপিং মলসহ দোকানপাট খোলা থাকবে। তবে আসনসংখ্যার অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলতে হবে গণপরিবহনকে। কোরবানির হাটও বসবে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ১ জুলাই থেকে কঠোর বিধিনিষেধ চলছে। প্রথমে ৭ জুলাই পর্যন্ত তা থাকলেও পরে তা আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়, যা আগামী ১৪ জুলাই শেষ হবে।

তবে বিধিনিষেধের মধ্যে সব সরকারি অফিসের দাপ্তরিক কাজগুলো ভার্চ্যুয়ালি (ই-নথি, ই-টেন্ডারিং, ই-মেইল, এসএমএস, হোয়াটসঅ্যাপসহ অন্যান্য মাধ্যম) সম্পন্ন করা হবে।

শ্রমজীবী মানুষসহ জীবিকার দিক বিবেচনা করে ঈদের আগে বিধিনিষেধ শিথিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে সরকারি সূত্রগুলো জানিয়েছে।

তবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুর বর্তমান পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধ শিথিল করলে পরিস্থিতি কেমন হবে, সেটা নিয়েও আশঙ্কা আছে।

উল্লেখ্য, দেশে একদিনে করোনাভাইরাস সংক্রমণে সর্বোচ্চ সংখ্যক রোগী শনাক্তের রেকর্ড হয়েছে আজ রোববার।

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ রোববার সকাল আটটা থেকে আজ সোমবার সকাল আটটা পর্যন্ত) করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৮ জন। হাজার ৮৭৪ জন। এ সময় করোনায় মারা গেছে ২২০ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.