বামপন্থি গুস্তাভো পেট্রো কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন

বামপন্থি সাবেক গেরিলা নেতা গুস্তাভো পেট্রো কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি রোববারের রান-অফ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী ডানপন্থি প্রার্থী ধনকুবের রোডলফো হার্নান্দেজকে পরাজিত করেন।

প্রদর্শিত ফলাফলে দেখা গেছে, পেট্রো মোট ভোটের ৫০ দশমিক ৫ শতাংশ আর হার্নান্দেজ ৪৬ দশমিক ৯ শতাংশ পেয়েছেন। এভাবে প্রতিদ্বন্দ্বীকে সাত লাখেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে কলম্বিয়ার প্রথম বামপন্থি প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হন গুস্তাভো পেট্রো।

এম-১৯ গেরিলা মুভমেন্টের সাবেক সদস্য ৬২ বছর বয়সী এ নেতা নিজের জয়কে ‘ঈশ্বর ও মানুষের জন্য বিজয়’ বলে বর্ণনা করেছেন, জানিয়েছে বিবিসি।

টুইটারে তিনি লিখেছেন, “আজ স্বদেশের হৃদয়ে খুশির যে বন্যা বয়ে যাচ্ছে তা বহু কষ্টকে লাঘব করবে। আজ রাস্তা-ঘাটের দিন।”

তার রানিং মেট ফ্রান্তিয়া মার্কেজ দেশটির প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন। তিনি একজন অবিবাহিত মা ও সাবেক গৃহকর্মী।

এদিকে হার্নান্দেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা এক ভিডিওতে পরাজয় স্বীকার করে নিয়েছেন। টিকটক ভিডিওর অপ্রচলিত প্রচারণার ওপর নির্ভর করে ব্যাপক জনসমর্থন গড়ে তুলেছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, ৬২ বছর বয়সি বামপন্থি পেট্রো একটি সংস্কার কর্মসূচিকে সামনে রেখে ভোটে লড়েছিলেন। তিনি সাবেক এম ১৯ আরবান রেবেল গোষ্ঠীর সদস্য ছিলেন। তার সম্পর্কে ও তার নীতি নিয়ে ভোটের আগে অনেকে প্রশ্ন তুলেছিলেন।

কিন্তু পেট্রোর সমর্থকরা জানিয়েছেন, তিনি পেনশন প্রকল্পকে ঢেলে সাজাবেন, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে ফ্রি করবেন, এবং দেশের মধ্যে যে অসাম্য ও দারিদ্র্য আছে তার মোকাবিলা করার চেষ্টা করবেন। তিনি নতুন তেল ও গ্যাস প্রকল্পগুলি বন্ধ করবেন বলেও জানিয়েছেন।

পেট্রো জানিয়েছেন, “আমরা ইতিহাস তৈরি করব”।

উল্লেখ্য, এই নিয়ে তৃতীয়বারের মতো প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়লেন পেট্রো। এর আগে ২০১০ এর নির্বাচনে চতুর্থ হয়েছিলেন তিনি। আর ২০১৮ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের রান-অফে পরাজিত হয়েছিলেন।

সূত্র: বিডিনিউজ টুয়েন্টিফোর ডট কম/ডিডব্লিউ বাংলা (অনলাইন)।

Leave a Reply

Your email address will not be published.