বাবুর পুকুর গণকবরে সিপিবি-ছাত্র ইউনিয়নের শ্রদ্ধা

মহান মুক্তিযুদ্ধে ১৯৭১ এর ১১ নভেম্বর দেশ যখন বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে এমন সময় বগুড়ার বাবুর পুকুরে বর্বর পাকিস্তানি মিলিটারি কর্তৃক গ্রেপ্তার ও নৃশংসভাবে ব্রাশ ফায়ারিংয়ে হত্যাকান্ডের শিকার হন তৎকালীন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সহ ১৪ জন।

সোমবার (১১ নভেম্বর) সকালে বাবুর পুকুর শহীদদের গণকবরে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন এর বগুড়া জেলা নেতৃবৃন্দ।

বাবুর পুকুর গণকবর ও শহীদ মিনার চত্বরে সিপিবি বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা জিন্নতুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ভাষা সৈনিক, মুক্তিযোদ্ধা মাহফুজুল হক দুলু, সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোঃ আমিনুল ফরিদ, কৃষক সমিতি বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সন্তোষ কুমার পাল, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন বগুড়া জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শাহ নেওয়াজ কবির খান পাপ্পু, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি নাদিম মাহমুদ, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা কমিটির সাংগাঠনিক সম্পাদক মোঃ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন যে, আসন্ন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী, এখনও উগ্র মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক স্বাধীনতা বিরোধী জামাত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধ হয়নি। অবিলম্বে স্বাধীনতা বিরোধীদের ও ধর্মীয় রাজনীতি নিষিদ্ধ করার দাবী জানান।

নেতৃবৃন্দ মুক্তিযুদ্ধ ও ত্রিশলক্ষ শহীদের স্বপ্ন পূরণে সাম্রাজ্যবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, লুটপাটতন্ত্র ও গণতন্ত্রহীনতার বিরুদ্ধে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দ্বি-দলীয় ধারার বিরুদ্ধে বাম বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি সমাবেশ গড়ে তোলার উদাত্ত আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.