বাজেটে সরকারের লুটপাট অনাচার ও জনবিরোধী অবস্থান স্পষ্ট

অর্থমন্ত্রী চলতি বছরের যে বাজেট প্রস্তাবনা দিয়েছেন, তাতে সরকারের লুটপাট, অনাচার ও জনবিরোধী অবস্থান স্পষ্ট বলে মন্তব্য করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) নেতারা।

গত (৪ জুন) শুক্রবার বিকালে সিপিবি ঢাকা কমিটি এক বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে পানির মূল্য বৃদ্ধি, স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতির তীব্র প্রতিবাদও জানিয়েছে।

সিপিবি ঢাকা কমিটির সভাপতি মোসলেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে ওই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা: সাজেদুল হক রুবেল, সম্পাদক সাদিকুর রহমান শামীমসহ ঢাকা কমিটির নেতারা।

তারা বলেন, দেশ আজ দুর্নীতির সকল রেকর্ড ভেঙে এক ভয়াবহ নৈরাজ্যের নজির স্থাপন করেছে। দূষিত পানি নগর জীবনকে অতিষ্ঠ করে তুলেছে। তার মধ্যে ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে গঠিত সরকার ১৩ বছরের মধ্যে ১৪ বার পানির দাম বাড়িয়ে জনজীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে। বৃষ্টিতে একদিকে ভয়াবহ জলাবদ্ধতা, আরেকদিকে দফায় দফায় পানির দাম বাড়ানোর ফলে নগরবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, দেশ যখন সর্বনাশা সময় অতিক্রম করছে, শ্রমজীবী মানুষ কাজ হারিয়ে বেকার-নিঃস্ব, সেইসময়ে পানি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম বাড়িয়ে মানুষের জীবনধারণকে আরো বেশী কঠিন পরিস্থিতিতে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। সরকারের যেখানে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর কথা, সেখানে তাদের দুর্নীতি ও ভুল নীতি মানুষের জীবনকে আরো আরো বেশি বিপর্যস্ত করে ফেলছে। স্বাস্থ্য খাতের দুর্নীতির কাহিনী এখন কারো অজানা নয়। সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের দুর্নীতির কথা যখন মানুষ মুখ ফুটে বলার চেষ্টা করছে, সরকার তখন দুর্নীতি দমন না করে যারা দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হচ্ছে তাদের দমন করায় ব্যস্ত। সরকারের ২০২১-২২সালের বাজেটেও সরকারের এই লুটপাট অনাচার ও জনবিরোধী অবস্থান স্পষ্ট।

সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের মানুষের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙ্গে যাচ্ছে। যদি এই দুর্নীতি বন্ধ না করা হয়, মানুষের জীবন ও জীবিকার সুষ্ঠু ব্যবস্থা না করা হয়, তাহলে জনগণ এই জনবিরোধী সরকারকে ঢাকা মহানগরের আবর্জনা ফেলার ভাগাড়ে নিক্ষেপ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.