বসুন্ধরার এমডির আগাম জামিন শুনানি হচ্ছে না আদালতে

ঢাকার গুলশানে এক তরুণীকে ‘আত্মহত্যার প্ররোচনা’ দেয়ার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর হাইকোর্টে যে আগাম জামিনের আবেদন করেছেন সেটির শুনানি আজ হয়নি।

সুপ্রিম কোর্টের বিধি ও চলমান সর্বাত্মক লকডাউনে সরকারি বিধিনিষেধের কারণে এ সময়ে আগাম জামিন চেয়ে করা কোনো আবেদনের ওপর শুনানি করবে না বলে জানিয়েছেন আদালত।

আজ (২৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার দুপুরে বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খন্দকার দিলিরুজ্জামানের ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ কথা জানিয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্টের বিধি ও চলমান সর্বাত্মক লকডাউনে সরকারি বিধিনিষেধের কারণে এ মুহূর্তে কোনো ধরনের আগাম জামিন শোনা যাবে না বলে অভিমত জানিয়েছেন হাইকোর্ট।

বেঞ্চটির আজকের কার্যতালিকায় মোসারাত জাহান ওরফে মুনিয়াকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে করা মামলার আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের আগাম জামিন আবেদনটি ১৪ নম্বর ক্রমিকে ছিল।

এর আগে গতকাল বুধবার ওই মামলায় আগাম জামিন চেয়ে আবেদন করেন আনভীর।

বেলা পৌনে ১১টার দিকে কার্যক্রম শুরু হলে আইনজীবীদের উদ্দেশে আদালত বলেন, ‘আপনাদের আরজির কারণে আমরা গতকাল বলেছিলাম, কিছু আগাম জামিন আবেদন শুনব। তবে কবে শুনব বলিনি। সুপ্রিম কোর্টের বিধি ও বর্তমান সর্বাত্মক লকডাউনে সরকারি বিধিনিষেধের কারণে এ মুহূর্তে কোনো ধরনের আগাম জামিন শোনা যাবে না। ১৩ থেকে ২৭ পর্যন্ত আইটেম (আগাম জামিনের আবেদন) ভুলভাবে এসেছে। নির্দেশনা ছিল ভবিষ্যতে আসবে, কিন্তু আজ ভুলক্রমে এসেছে। সুতরাং আগাম জামিন আবেদনের শুনানি হবে না।’

এর আগে ২৬ এপ্রিল রাতে গুলশানের একটি ফ্ল্যাট থেকে মোসারাতের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় তার বোন নুসরাত জাহান বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলা করেন। এ মামলার একমাত্র আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর।

উল্লেখ্য, সায়েম সোবহান আনভীরের বিরুদ্ধে মামলাটি হওয়ার পর তার বিদেশযাত্রার উপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আদালতে একটি আবেদন করেছিল পুলিশ। আদালত সেই আবেদন মঞ্জুর করেছে।

কিন্তু বাংলাদেশের সামাজিক মাধ্যমে একটি তথ্য ছড়িয়ে পড়েছে যে, বসুন্ধরার ব্যবস্থাপনা পরিচালক গোপনে দেশের বাইরে চলে গেছেন।

বসুন্ধরার এই কর্মকর্তা দেশের বাইরে চলে গেছেন বলে সামাজিক মাধ্যমে খবর ছড়িয়ে পড়লেও, পুলিশ বলছে, তাদের কাছে থাকা তথ্য অনুযায়ী, তিনি দেশের ভেতরেই রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.