বন্ধ চিনিকল চালুর দাবিতে নারায়নগঞ্জে শ্রমিক ফ্রন্টের মানববন্ধন

বন্ধ ৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকল অবিলম্বে চালুর দাবিতে সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা একটি মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

আজ (২৪ ডিসেম্বর) বিকাল ৪টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বলা হয়, সরকার ২ ডিসেম্বর ২০২০ কুষ্টিয়া, পাবনা, পঞ্চগড়, শ্যামপুর, রংপুর, সেতাবগঞ্জ ৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকল বন্ধ ঘোষণা করেছে। লোকসানের অজুহাতে এই চিনিকলগুলো বন্ধ করেছে। এর আগে সরকার ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধ করেছে। সরকারের বেসরকারিকরণ নীতির অংশ হিসাবে এই বন্ধ প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। ৬টি চিনিকলে ২৮৮৪ জন শ্রমিক কর্মরত। করোনাকালে পাটকলগুলোতে ৫০ হাজার শ্রমিক কাজ হারিয়েছে। পাটকল ও চিনিকলের হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ লুটপাটের উদ্দেশ্যে সরকার লুটপাটকারী মালিকদের হাতে তুলে দিচ্ছে।

মানববন্ধনে আরও বলা হয়, সরকার লোকসানের কারণ অনুসন্ধান করে তার ব্যবস্থা না নিয়ে সমস্ত দায় দায়িত্ব শ্রমিকের ওপর চাপানো হয়েছে। বিশেষজ্ঞ মতে পুরনো এ সব কারখানা প্রতিষ্ঠার পর আধুনিকায়ন হয়নি। ৫০ বছরেরও অধিককাল যাবৎ এ কারখানাগুলো চলছে। এর সাথে আছে ব্যবস্থাপনার সাথে যুক্ত মন্ত্রণালয়, কর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের ভুলনীতি ও দুর্নীতি।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ৬টি চিনিকল ও ২৫ টি পাটকল আধুনিকায়ন করে সরকারি মালিকানায় চালুর দাবি করেন।

সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লবের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক ও গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, রি-রোলিং স্টিল মিলস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদির, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের জেলার দপ্তর সম্পাদক রুহুল আমিন সোহাগ।