‘প্রজ্ঞাহীন’ প্রজ্ঞাপন বাতিল করে সর্বজনীন টিকাসহ ৩ দাবি যুব ইউনিয়নের

করোনাভাইরসের কারণে সারাদেশে চলমান লকডাউনের প্রজ্ঞাপনকে ‘প্রজ্ঞাহীন’ অভিহিত করে রাজধানী ঢাকায় যুব নেতৃবৃন্দ গ্রাম শহরের শ্রমজীবী মানুষের জন্য রেশনিং এর মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা, সর্বজনীন টিকা এবং বেকার ভাতার দাবি তুলে ধরে নতুন প্রজ্ঞাপন দেয়ার দাবি জানান।

গতকাল (২৭ জুন) রোববার বেলা চারটায় রাজধানীর পুরনো পল্টন মোড়ে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে যুব নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি যুবনেতা হাফিজ আদনান রিয়াদের সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আশিকুল ইসলাম জুয়েলের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন যুব ইউনিয়ন এর সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম, প্রেসিডিয়াম সদস্য ডাঃ সাজেদুল হক রুবেল, প্রেসিডিয়াম জাহাঙ্গীর আলম নান্নু এবং ঢাকা মহানগর উত্তরের সমাজকল্যাণ সম্পাদক ডাঃ মোজাহিদুল হক রিপন।

সভাপতির বক্তব্যে হাফিজ আদনান রিয়াদ বলেন “এই করোনাকালীন সময়ে প্রায় চার কোটি শ্রমজীবী মানুষ কর্মসংস্থান হারিয়ে বেকার-অর্ধবেকারে পরিণত হয়েছেন। কিন্তু সরকার নতুনভাবে বেকারত্ব বরণ করা এই মানুষের জন্য সরকার কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করে বারবার লকডাউনের নামে তামাশা করছে। সরকার চালাচ্ছে বড় বড় কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান, তারা টাকার চশমা পড়ে জনগনের দিকে পিঠ দিয়ে রয়েছে।”

“শ্রমজীবী মানুষকে খাদ্য সহায়তা এবং বেকারদের ভাতা” দেয়ার দাবি জানিয়ে তিনি অবলম্বে সরকারকে দাবি মেনে নেয়ার আহবান জানান।

সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম বলেন ” মানুষকে খাদ্য সহায়তা না পৌছে লকডাউন কার্যকর করা যাবে না। বারবার লকডাউন দিয়ে সাময়িকভাবে করোনা সংক্রমণ কমানো গেলেও সর্বজনীন টিকা নিশ্চিত না করলে এই মাহামারী বন্ধ করা যাবে না।

তিনি সরকারকে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন জনগণ সহ্যের শেষ সীমায় পৌঁছে গেছে, যেকোন সময় গণঅভ্যুত্থান হলে সরকার পালানোর সূযোগ পাবে না।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুব ইউনিয়ন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহসভাপতি আনোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক জীবন কুমার সাহা, কোষাধ্যক্ষ রফিজুল ইসলাম রফিক, যুব ইউনিয়ন ঢাকা মহানগর উত্তরের নেতা রফিকুল ইসলাম, ছাত্রনেতা মাহির শাহরিয়ার রেজা, জিকে সাদিক প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.