পেগাসাস স্পাইওয়্যার নিয়ে স্নোডেন যা বললেন

ইসরায়েলের ‘পেগাসাস’-সহ বিভিন্ন দেশের সরকারের স্পাইওয়্যার বাণিজ্যে বৈশ্বিক স্থগিতাদেশ জারি করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর গোপন কার্যক্রম ফাঁস করে পৃথিবীজুড়ে হৈচৈ ফেলে দেওয়া এডওয়ার্ড স্নোডেন।

স্নোডেন সতর্ক করে আরও বলেন, যদি তা বন্ধ করা না হয় তবে এমন একটি বিশ্বের সম্মুখীন হতে হবে যেখানে রাষ্ট্র-সমর্থিত হ্যাকারদের হাত থেকে কোনো মোবাইল ফোন নিরাপদ থাকবে না।

সম্প্রতি পেগাসাস স্পাইওয়্যার কেলেঙ্কারির ঘটনা সামনে আসার পর ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের সঙ্গে আলোচনার সময় স্পাইওয়্যার নিয়ে এ মন্তব্যগুলো করেছেন এডওয়ার্ড স্নোডেন।

এ ছাড়াও কেবল লাভের আশায় ম্যালওয়্যার নির্মাণ “শিল্প যা থাকা উচিত নয়”বলেও মত দেন স্নোডেন।

স্নোডেনের মতে, বাণিজ্যিক ম্যালওয়্যার কীভাবে দমনমূলক শাসন ব্যবস্থাকে আরও মানুষের উপর সবচেয়ে আক্রমণাত্মক ধরনের নজরদারি চালানোর ব্যবস্থা করা দিচ্ছে তা উঠে এসেছে জোটের অনুসন্ধানে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গতানুগতিক পুলিশ কার্যক্রমে বাগ স্থাপন করতে বা কোনো সন্দেহভাজনের ফোন ওয়্যারট্যাপ করতে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থাকে “কোনো ব্যক্তির বাসায় অনুপ্রবেশ করতে হবে, বা গাড়ির কাছে যেতে হবে, বা তাদের অফিসে যেতে হবে, এবং আমরা মনে করতে পারি, তারা হয়তো ওয়ারেন্ট নিয়ে আসবে।”

কিন্তু বাণিজ্যিক স্পাইওয়্যার সাশ্রয়ী মূল্যে আরও বেশি মানুষকে নজরদারি লক্ষ্যবস্তুতে নিয়ে আসার সুযোগ দিচ্ছে। “তারা যদি একই কাজ দূর থেকে করতে পারে, অল্প কিছু খরচে এবং কোনো ঝুঁকি ছাড়াই, তারা এটি সবসময় করা শুরু করবে, এমন যে কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধেও যিনি হয়তো সন্দেহের বাইরে রয়েছেন।” – বলেছেন স্নোডেন।

স্নোডেন আরও জানান, পেগাসাসের মতো বাণিজ্যিক ম্যালওয়্যার এতোটাই শক্তিশালী যে সাধারণ মানুষ কার্যকরীভাবে কোনো কিছুই করতে পারবে না এটি বন্ধ করতে।

মানুষ কীভাবে নিজেদের রক্ষা করতে পারেন এমন প্রশ্নের উত্তরে স্নোডেন বলেন, “মানুষ নিজেদের পারমাণবিক অস্ত্রের হাত থেকে বাঁচাতে কী করতে পারে?”

এ থেকে বাঁচার একটাই টেকসই সমাধান আছে স্নোডেনের মতে। তা হলো, এ ধরনের বাণিজ্যিক ম্যালওয়্যার বিক্রিতে আন্তর্জাতিক স্থগিতাদেশ। “পেগাসাস প্রজেক্ট যা জানাচ্ছে তা হলো এনএসও গ্রুপ আদতে নতুন ম্যালওয়্যার বাজারের প্রতিনিধিত্ব করছে, যেখানে এটি একটি লাভজনক ব্যবসা। এনএসও এটি শুধু একটি কারণেই করছে, বিশ্বকে বাঁচানোর জন্য নয়, অর্থ আয়ের জন্য।” – বলেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, পেগাসাস নামের উন্নত স্পাইওয়্যার তৈরি করে তা বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে বিক্রি করে ইসরায়েলি এনএসও গ্রুপ। এই স্পাইওয়্যারটি গোপনে মোবাইল ফোনকে আক্রান্ত করে এবং সেটি থেকে তথ্য সংগ্রহ করে। ইমেইল, টেক্সট, যোগাযোগ তালিকা, অবস্থান ডেটা, ছবি এবং ভিডিও সবই হাতিয়ে নিতে পারে স্পাইওয়্যারটি, এবং গোপনে ব্যবহারকারীর উপর নজরদারি চালাতে ফোনের ক্যামেরা ও মাইক্রোফোনও সচল করে দিতে পারে এটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.