পূর্ব রাজাবাজার আরও ৭ দিন লকডাউন থাকবে

করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারে চলমান লকডাউনের মেয়াদ আরও ৭ দিন বাড়িয়ে ২১ দিন নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (২৩ জুন) সকাল ১১ টার দিকে পূর্ব রাজাবাজারে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সংক্রামক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার বিশেষ কর্মসূচি উদ্বোধন কালে তিনি এ কথা জানান।

এসময় লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর ঘোষণা দিয়ে আতিক বলেন, আজ রাত ১২টা পর্যন্ত ১৪ দিনের লকডাউনের মেয়াদ ছিল। কিন্তু আমাদের সঙ্গে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কথা হয়েছে। যে এলাকাতে লকডাউন করব, নিয়ম অনুযায়ী, ২১ দিন লকডাউন রাখতে হবে। কাজেই আমরা এই এলাকাকে ২১ দিন পর্যন্ত লকডাউন রাখব। লকডাউন আরও সাতদিন বাড়লো। ওই এলাকার বাসিন্দাদের আরও সাতদিন লকডাউনে থাকতে হবে।

লকডাউন সফল করতে এলাকাবাসীর প্রতি আহ্বান জানান ডিএনসিসি মেয়র। একইসঙ্গে ১৪ দিনের এই লকডাউন পালনের জন্য এলাকার বাসিন্দা এবং স্বেচ্ছাসেবকদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান আতিক।

বিভিন্ন বাসা-বাড়ি থেকে সংগৃহীত সাধারণ বর্জ্যের সঙ্গে মেডিক্যাল বর্জ্য পাওয়া যাচ্ছে বলে সচেতন করেন আতিক। বিষয়টিতে ব্যাপক স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে উল্লেখ করে এর জন্য আলাদা ব্যাগের মাধ্যমে পিপিই, মাস্ক, গ্লাভসসহ এ ধরনের বর্জ্য সংগ্রহ করার ঘোষণা দেন ডিএনসিসি মেয়র।

প্রতি সপ্তাহে দুইদিন এসব ব্যাগে দেওয়া মেডিক্যাল বর্জ্য বাসা-বাড়ি থেকে সংগ্রহ করা হবে। আর আগামী ৭ জুলাই থেকে সাধারণ বর্জ্যের সঙ্গে মেডিক্যাল বর্জ্য কেউ দিলে সেই বাসা-বাড়ি থেকে কোনো ধরনের বর্জ্য সংগ্রহ করা হবে না বলেও হুঁশিয়ার করে দেন আতিকুল ইসলাম।

পূর্ব রাজাবাজারের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে রাজধানীর অন্যান্য এলাকায় লকডাউন করতে চান আতিক। রাজাবাজারের লকডাউনে সাহায্য করার জন্য এলাকাবাসীকে স্যালুট জানান ডিএনসিসি মেয়র।

এর আগে গত ৯ জুন থেকে পরীক্ষামূলকভাবে লকডাউন করা হয় পূর্ব রাজাবাজার।