নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে টি-টয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে ৭-এ বাংলাদেশ

আইসিসির টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে ১০ থেকে ৭-এ উঠে এল বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ টি-টোয়েন্টির সিরিজের প্রথম ম্যাচে জিতেই এই অগ্রগতির খবর জানা গেল।

আইসিসির ওয়েবসাইটে সর্বশেষ প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে দেখা যাচ্ছে, বাংলাদেশ এখন ২৩৮ রেটিং নিয়ে তালিকার ৭ নম্বরে আছে। নিউজিল্যান্ড ২৬০ পয়েন্ট নিয়ে আছে তালিকার ৪ নম্বরে। এক ধাপ পিছিয়েছে কিউইরা। ২৭৮ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আছে ইংল্যান্ড।

এর আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৪-১ ব্যবধানে জয়ের পরও বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি র‍্যাঙ্কিংয়ে ছিল ১০ নম্বরে। র‍্যাঙ্কিং পয়েন্ট ছিল ২৩৪।

উল্লেখ্য, গতকাল মিরপুরের ধীরগতির উইকেটের পুরো সুবিধা নিয়ে নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় সারির দলকে ৬০ রানে অলআউট করে দিয়েছেন মোস্তাফিজ-সাকিবরা।

এরপর ৩০ বল আর ৭ উইকেট হাতে রেখেই লক্ষ্যটা পেরিয়ে গেছে বাংলাদেশ। তারপরই আজ আইসিসির ওয়েবসাইট থেকে মিলল র‍্যাঙ্কিংয়ে উন্নতির সুখবর।

তবে টি-টোয়েন্টির র‍্যাঙ্কিংয়ে ওঠানামা এত দ্রুত হয় যে এক ম্যাচে হার-জিতই র‍্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ ওপরে বা নিচে নিয়ে যেতে পারে! সিরিজের পরের দুই টি-টোয়েন্টিতে হেরে গেলেই যেমন বাংলাদেশ আবার নেমে যেতে পারে র‍্যাঙ্কিংয়ের ৮ নম্বরে।

আবার পরের দুই ম্যাচে জিতলে র‍্যাঙ্কিংয়ে আরেক ধাপ উন্নতি হতে পারে বাংলাদেশ দলের। সিরিজের দ্বিতীয় ও তৃতীয় টি-টোয়েন্টি জিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত করামাত্রই বাংলাদেশ উঠে যাবে র‍্যাঙ্কিংয়ের ৬ নম্বরে, র‍্যাঙ্কিং পয়েন্ট হবে ২৪৪।

সিরিজের বাকি সব ম্যাচে জিতে নিউজিল্যান্ডকে আরেকবার ‘বাংলাওয়াশ’ করলে বাংলাদেশের র‍্যাঙ্কিংয়ের ৫ নম্বরে উঠে যাওয়ারও সুযোগ থাকবে।

এ তো গেল জয়ের হিসাব, বাংলাদেশ এক বা একাধিক ম্যাচে হেরে গেলে?

বাকি চার ম্যাচের চারটিতেই হেরে গেলে বাংলাদেশ আবার র‍্যাঙ্কিংয়ের ১০ নম্বরে নেমে যেতে পারে! তখন আবার র‍্যাঙ্কিং পয়েন্ট হয়ে যাবে ২৩৪। অর্থাৎ যে পয়েন্ট নিয়ে নিউজিল্যান্ড সিরিজ শুরু করেছিল বাংলাদেশ, সেই পয়েন্টেই ফেরত যাবে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.