নারায়ণগঞ্জে গণপিটুনিতে অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি নিহত

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় ডাকাত সন্দেহে গণপিটুনিতে আনুমানিক ৩৫ বছর বয়সী অজ্ঞাতপরিচয় এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

আজ (৬ নভেম্বর) শুক্রবার ভোররাত চারটার দিকে উপজেলার ইলমদী আমবাগ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সকালে খবর পেয়ে আড়াইহাজার থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদরের জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে আড়াইহাজার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) পলাশ কান্তি রায় সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ রাতে ইলমদি আমবাগান এলাকায় দুর্বৃত্তের কবলে পড়েন আরমান হোসেন নামে এক ব্যক্তি। তিনি রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা এলাকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। লেট নাইট ডিউটি শেষে আরমান মোটরসাইকেলে আড়াইহাজার উপজেলার খাগকান্দা এলাকায় বাড়িতে ফিরছিলেন। দুর্বৃত্তরা তাকে মারধর করে বেঁধে রাখে। ভোরে স্থানীয় বাসিন্দারা দেখেন অপরিচিত দুই জন ব্যক্তি আরমানের মোটরসাইকেল চালু করার চেষ্টা করছেন। তারা ডাকাত সন্দেহে দুজনকে ধাওয়া দেয়। এক জন পালিয়ে যায়, আরেক জনকে স্থানীয় বাসিন্দারা গণপিটুনি দেয়। এতে তার মৃত্যু হয়।’

এদিকে দ্য ডেইলি স্টার ছিনতাইয়ের শিকার আরমান হোসেন-কে উদ্ধৃত করে বলেন, ‘রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে ইলমদি আমবাগানের কাছে এসে দেখি কলাগাছ ফেলে রাস্তা বন্ধ করে রাখা হয়েছে। মোটরসাইকেল দাঁড় করাতেই পাঁচ থেকে ছয় জন আমাকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে এবং মারধর করে বেঁধে রাখে। ভোরে মাইকে ঘোষণা শোনা যায় এলাকায় ডাকাত পড়েছে। তারপর স্থানীয় বাসিন্দারা এসে আমাকে উদ্ধার করে।’

দৈনিক প্রথম আলো ইলমদী এলাকার এক মুদি দোকানির (নাম প্রকাশ না করার শর্তে) বরাতে বলেন, ভোরে মসজিদের মাইকে ঘোষণা করা হয় এলাকায় ডাকাত পড়েছে। পরে লোকজন গিয়ে এক ব্যক্তিকে মারধর করলে তিনি মারা যান।

ঘটনাস্থলে যাওয়া আড়াইহাজার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) পলাশ কান্তি রায় সাংবাদিকদের আরো জানান, লাশের মাথায় আঘাতের চিহ্ন আছে। শরীর কিছুটা ফুলে গেছে। ওই ব্যক্তির শরীরে কালো প্যান্ট ছাড়া কিছুই ছিল না। আঙুলের ছাপের মাধ্যমে ওই ব্যক্তির পরিচয় শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ছিনতাইয়ের শিকার আরমান উপজেলার খাগকান্দা এলাকার আবদুস সামাদের ছেলে। তাঁর ভাই মাহবুবুর রহমান খাগকান্দা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি।