দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সিপিবির ‘বিক্ষোভ সপ্তাহ’, ১৬-২২ অক্টোবর

চাল, ডাল, তেল, আটা, চিনি, পেঁয়াজ, রসুন, সবজিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম লাগামহীন বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) আগামী ১৬-২২ অক্টোবর দেশব্যাপী ‘বিক্ষোভ সপ্তাহে’র ডাক দিয়েছে।

আগামী ২২ অক্টোবর ঢাকাসহ সব জেলা শহরে বিক্ষোভ-কর্মসূচি পালিত হবে।

‘বিক্ষোভ সপ্তাহে’ জেলা-উপজেলায় সর্বত্র হাটসভা, পথসভা ও কাঁচা বাজারের সামনে ‘দাম কমাও জান বাঁচাও’ শ্লোগানে বিক্ষোভ করা হবে।

সিপিবির সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম এক বিবৃতিতে ‘বিক্ষোভ সপ্তাহে’র বিক্ষোভ-কর্মসূচি সফল করার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এর মধ্যেই ‘মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা’ হিসেবে সরকার আবারও ১২ কেজি সিলিন্ডারের এলপিজির দাম বাড়িয়েছে। করোনার আঘাতে মানুষ যখন অসহায় এবং মানুষের আয় কমেছে তখন ‘দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়া’র ধাক্কায় মানুষের জীবন চরম হুমকির মধ্যে পড়েছে। সরকারের বাজার তদারকি ও নিয়ন্ত্রণের অভাবে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট দাম বাড়িয়েই চলেছে। গণবিরোধী সরকার লুটেরা, মুনাফাখোর, মজুদদারদের ‘পাহারাদার’ হিসেবে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটকে রক্ষা করে চলেছে। সরকার আর সিন্ডিকেটের যোগসাজশে একদিকে উৎপাদক কৃষক প্রতারিত হচ্ছে, অন্যদিকে ভোক্তাদের পকেট কাটা যাচ্ছে। অবৈধ সিন্ডিকেট শুধু বাজার নয়, গণবিরোধী কর্তৃত্ববাদী সরকারকেও নিয়ন্ত্রণ করছে।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, সাধারণ মানুষের প্রতি ‘বিনা ভোটের সরকারে’র যেন কোনো দায় নেই। মুক্তিযুদ্ধের দর্শন থেকে সরে গিয়ে সরকার এখন মুক্তবাজার দর্শনের ভিত্তিতে দেশ পরিচালনা করছে। কর্তৃত্ববাদী সরকার যতদিন ক্ষমতায় থাকবে, ততদিন মানুষের যন্ত্রণা বাড়তেই থাকবে। কর্তৃত্ববাদী সরকারের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.