ঢাবি’র ১৬৮ জন শিক্ষার্থীর রক্ত পরীক্ষা করে ১৩ জনের ডেঙ্গু শনাক্ত

হু হু করে সারাদেশে বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ। ক্রমবর্ধমান ডেঙ্গু–আতঙ্ক কারণে বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে আনা হয়েছে ডেঙ্গু শনাক্তকরণ ডিভাইস। গতকাল বুধবার প্রথম দিনেই ১৬৮ জন শিক্ষার্থীর রক্ত পরীক্ষা করে ১৩ জনের ডেঙ্গু শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসাকেন্দ্রের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. সারওয়ার জাহান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ তথ্য জানিয়ে তিনি বলেন, চিকিৎসাকেন্দ্রে এখন রক্তের প্লাটিলেট গণনা ও ডেঙ্গু শনাক্তকরণ—দুটোই করা যাচ্ছে।

ডা. সারওয়ার জাহান আরও বলেন, ডেঙ্গু শনাক্তকরণের যে ডিভাইসটি চিকিৎসাকেন্দ্রে আনা হয়েছে, তার দৈনিক সক্ষমতা ১৫০। অর্থাৎ প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১৫০ শিক্ষার্থী ডেঙ্গু শনাক্তকরণের পরীক্ষা করাতে পারবেন। শিক্ষার্থীদের চাপ বেশি হওয়ায় গতকাল ১৬৮ জনের রক্তের নমুনা নেওয়া হয়। তবে এখন থেকে ১৫০–এর বেশি নমুনা নেওয়া যাবে না।

এদিকে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় ক্যাম্পাস ও হল বন্ধ ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন। এই দাবিতে গত সোমবার (২৯ জুলাই) উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.