ঢাকা বাঁচাতে ‘পরিবেশ বীক্ষণ’র সমাবেশ

অপরিকল্পিত নগরায়ণের বিরুদ্ধে ঢাকা বাঁচাতে বিক্ষোভ-সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে পরিবেশ বাদী সংগঠন ‘পরিবেশ বীক্ষণ’।

বৃহস্পতিবার (২৮ নভেম্বর) বিকেল ৪টায়,শাহবাগে এই বিক্ষোভ-সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

পরিবেশ বীক্ষণের অন্যতম সংগঠক মাঈন উদ্দিনের সঞ্চালনায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাথী অর্ণি আনজুম বলেন, আমাদের ক্যাম্পাসে গতকাল এক শিক্ষাথী মৃত্যূবরণ করেছেন শ্বাসকষ্টে, ক্যাম্পাসে ধূলা ময়লা আর যানবাহনের বিষাক্ত ধোয়ায় আজ শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ আর আগের মতো নেই, উন্নয়নের বাতাসে পরিবেশ আজ হুমকির মুখে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েরে শিক্ষার্থী পরিবেশ বীক্ষণের অন্যতম সংগঠক আতাউল হক চৌধূরী বলেন, আমাদের ঢাকা শহরে প্রায় অধিকাংশ মানুষ মৃত্যুবরণ করে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের কারণে, দিল্লিতে তো অক্সিজেন বার খোলা হয়েছে, কিন্তু আমাদের দেশে অক্সিজেন বার খোলা হলেও সাধারণ মানুষ সেই বারে প্রবেশ করতে পারবে না। উন্নয়নও বড়লোকের জন্য, নির্মল বাতাসও বড়লোকের জন্য।

পরিবেশ বীক্ষণের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যতম সংগঠক, রেশমী সাবা সমাপনী বক্তব্যে বলেন, আপনারা অন্ততপক্ষে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করুন। অমাদের শহরকে শেষ করে দিচ্ছে উন্নয়নের নামে, আপনার অন্ততপক্ষে আপনার সন্তানের ভবিষৎতের কথা চিন্তা করে হলেও রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করুন।

তিনি বলেন, আপনরা কি চান, আপনার সন্তান অক্সিজেনের সিলিন্ডার কাঁধে নিয়ে রাস্তায় হাঁটুক?এখনই যে ভয়াবহ অবস্থা তৈরি হয়েছে দেশে কদিন পর আমাদের তাই করতে হবে।

সামাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তানজিদ হায়দার চঞ্চল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাথী আদনান আজিজ চৌধূরী, সুপ্রিয় শাহা, মং সোনাই প্রমূখ।

উল্লেখ্য, বায়ু দূষণ সূচকে ভারতের রাজধানী দিল্লিকে ছাড়িয়ে গেছে ঢাকা। বাতাসের মান নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান এয়ার ভিজ্যুয়ালের ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত বায়ুর শহরের তালিকায় সোমবার (১৯ নভেম্বর) থেকে এক নম্বরে রয়েছে ঢাকা।

এয়ার ভিজ্যুয়ালের তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে (একিউআই) ঢাকার স্কোর ২১২, যা খুবই অস্বাস্থ্যকর। আর দিল্লির স্কোর ১৯৬, যাকে চিহ্নিত করা হয়েছে অস্বাস্থ্যকর হিসেবে। বাতাসের মান নিয়ে তৈরি করা একিউআই সূচক একটি শহরের বাতাস কতটুকু নির্মল বা দূষিত সে সম্পর্কে তথ্য দেয় এবং তাদের জন্য কোন ধরনের স্বাস্থ্য ঝুঁকি তৈরি হতে পারে তা জানায়। একিউআই সূচকে ৫১ থেকে ১০০ স্কোর পাওয়ার মানে হলো বাতাসের মান গ্রহণযোগ্য। ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর পাওয়ার অর্থ হচ্ছে বাতাসের মান দূষিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.