ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যর্থ দুই মেয়রের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশ

ডেঙ্গু প্রকোপে বিপন্ন মানুষের জীবন, ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যর্থ ঢাকার দুই মেয়রের অপসারণের দাবিতে মশারি, কয়েল ও কার্টুনচিত্রসহ বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন। মঙ্গলবার (৩০জুলাই) বিকেল ৫টায় শাহবাগ প্রজন্ম চত্বর জাতীয় জাদুঘরের সামনে এই বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরে ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারণ করেছে। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। এখন হাসপাতালে ভর্তির
সিটও পাওয়া যাচ্ছে না। প্রায় প্রতিদিন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয় এবং মানুষের মৃত্যুর খবরও পাওয়া যাচ্ছে তখন ঢাকার দুই মেয়র এসব গুজব বলে চালিয়ে জনগণের সাথে
তামাশা করছে। মেয়রদের দায়িত্বহীন কথা অন্যদিকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যর্থ মেয়রদের দায়িত্ব পালন এক মুহূর্ত নৈতিক অধিকার থাকে না। ঢাকা নগরের জনগণের জীবনের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ দুই মেয়রের অপসারণ সময়ের দাবি। তাই অবিলম্বে ব্যর্থ দুই মেয়রের অপসারণ চাই।

সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, দুই সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মশক নিধনে ৫০ কোটি টাকা বাজেট থাকার লুটপাট দুর্নীতি, অকার্যকর মশক নির্ধনের ওষুধ কেনায় মশার
ওষুধে কোন কাজ হচ্ছে না। ফলে ঘাতক এই মশার দ্রুত বংশ বৃদ্ধির কারণে নগর জীবনের আতংকের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এতদিন ডেঙ্গুর এই ভয়াবহ প্রকোপ কেবল
ঢাকাতে ছড়ালেও এখন তা ছড়িয়ে পড়েছে। ফলে ডেঙ্গু এখন পুরো দেশেই মহামারী আকার ধারণ করেছে। অবিলম্বে এর প্রতিরোধ না করা গেলে দেশের বেশিরভাগ মানুষ
স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরে যাবে।

বক্তারা বলেন, সরকারের ও সিটি কর্পোরেশনের অব্যবস্থাপনা দায়িত্বহীনতার কারণে বাংলাদেশের সকল মানুষের ভয়াবহ স্বাস্থ্য ঝুঁকির আশংকা দেখা দিয়েছে। তাই ব্যর্থ দুই মেয়রের অপসারণ জরুরি এবং জনগণকে ডেঙ্গুর আক্রমণ থেকে বাঁচতে নিজেদের চারপাশের পরিবেশ পরিস্কার রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে।

যুব ইউনিয়নের উদ্যোগে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের জন্য রক্তের গ্রুপ সংগ্রহ অভিযান চলছে এবং ডেঙ্গু সচেতনতার জন্য ঢাকা শহরের পাড়া-মহল্লায় পরামর্শ প্রচারপত্র বিলি করা হবে বলে জানান নেতৃবৃন্দ।

বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে নিম্নোক্ত দাবি উত্থাপন করা হয় :

  • মশা নিধনে ব্যর্থ মেয়রদ্বয়ের অপসারণ করতে হবে।
  • মশা নিধন ওষুধ ক্রয় দুর্নীতির সাথে জড়িতদের শাস্তি দিতে হবে।
  • ডেঙ্গুতে মৃতদের ক্ষতিপূরণ প্রদান, বিনামূল্যে ডেঙ্গু নির্ণয়ের ব্যবস্থা করতে হবে।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করতে হবে।
  • এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে সর্বাত্মক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি হাফিজ আদনান রিয়াদ এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন যুব ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক খান আসাদুজ্জামান মাসুম,
প্রেসিডিয়াম সদস্য ডা. সাজেদুল হক রুবেল, তসলিম সাখাওয়াত, শিশির চক্রবর্তী, ত্রিদিব সাহা, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল, যুব ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক আশিকুল ইসলাম জুয়েল, ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক রাসেল ইসলাম সুজন, ঢাকা জেলার সাধারণ সম্পাদক আরিফিন মাহমুদুল হাসান ধ্রুব প্রমুখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন সহ সাধারণ সম্পাদক শরিফ উল আনোয়ার সজ্জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.