চা শ্রমিকদের আন্দোলনে উদীচীর সংহতি, দাবি মেনে নেয়ার আহ্বান

মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে সিলেট, মৌলভীবাজার, চট্টগ্রামসহ দেশের প্রায় সবগুলো চা-বাগানের শ্রমিকদের চলমান আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী।

উদীচীর সভাপতি অধ্যাপক বদিউর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক অমিত রঞ্জন দে এক বিবৃতিতে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে দিনে মাত্র ১২০ টাকা মজুরিতে বাগানে কাজ করে আসছেন চা শ্রমিকরা। উদয়াস্ত পরিশ্রম করে যে টাকা তারা পান তা দিয়ে বর্তমান সময়ে একটি পরিবারের ভরণ-পোষণ করা প্রায় অসম্ভব।

গত কিছুদিনে দেশে চাল, ডাল, তেল, সবজি, ডিমসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। যার ফলে, জীবিকা নির্বাহ করতে গিয়ে স্বচ্ছল, মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষেরও হিমশিম খেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় মাত্র ১২০ টাকা দৈনিক মজুরি দিয়ে কারো পক্ষেই পরিবারের সব সদস্যের অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষার মতো মৌলিক চাহিদাগুলো মেটানো সম্ভব নয়। তাই, ন্যায়সঙ্গত কারণেই দৈনিক মজুরি ১২০ টাকা থেকে ন্যুনতম ৩০০ টাকায় উন্নীত করতে ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন করে আসছেন চা শ্রমিকরা।

বিবৃতিতে উদীচীর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন, দীর্ঘ প্রায় দুই বছর ধরে আন্দোলন করলেও চা শ্রমিকদের ন্যায্য দাবির প্রতি কর্ণপাত করা বা কোন ধরনের আশ্বাস দেয়নি বাগান মালিক বা প্রশাসন। উল্টো তাদের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনকে বলপ্রয়োগে দমন করার চেষ্টা করছেন তারা। বিভিন্ন স্থানের শ্রমিকদের আন্দোলনে বাধা সৃষ্টি করছে পুলিশ। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর এ ভূমিকার তীব্র নিন্দা জানান উদীচীর নেতৃবৃন্দ।

একইসাথে অবিলম্বে চা শ্রমিকদের দৈনিক মজুরি ন্যুনতম ৩০০ টাকা করার ন্যায়সঙ্গত দাবি মেনে নেয়ার জন্য চা বাগান মালিক এবং সরকারের প্রতি আহ্বান জানান নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.