চলে গেলেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি

তিন সপ্তাহ ধরে দিল্লির সেনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি।মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

সোমবার (৩১ আগস্ট) বিকেলে তিনি শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। প্রণব মুখার্জির পুত্র সাবেক সাংসদ কংগ্রেস নেতা অভিজিত মুখার্জি প্রথম তার মুত্যু সংবাদ জানান।

তার ছেলে অভিজিত মুখার্জি সন্ধ্যায় এক টুইটে বলেন, “দুঃখ ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আজ সবাইকে জানাতে হচ্ছে, আর আর হাসপাতালের চিকিৎসকদের সর্বোচ্চ চেষ্টা আর সমগ্র ভারতবাসীর দোয়া ও প্রার্থনার পরও আমার বাবা শ্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় এইমাত্র মারা গেলেন।”

২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের ত্রয়োদশ রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করা প্রণব মুখোপাধ্যায় ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের ভাষায় ছিলেন ‘আ ম্যান অব অল সিজনস’।

তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এক টুইটে বলেন, “ভারতরত্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের প্রয়াণে ভারত আজ শোকগ্রস্ত”।

১০ আগস্ট নয়াদিল্লির রাজাজি মার্গের সরকারি বাসভবনে কলঘরে পড়ে গিয়ে প্রণব মুখার্জি মাথায় আঘাত পান। তাকে নিয়ে যাওয়া হয় সেনা হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার করোনা ভাইরাস ধরা পড়ে। চিকিৎসায় সাড়া দিলেও সেই থেকে তিনি কোমায় চলে যান। ক্রমেই তার ফুসফুসে সংক্রমণ ধরা পড়ে। দীর্ঘ তিন সপ্তাহ লড়াই করার পর চলে গেলেন তিনি।