চট্টগ্রামে সিপিবির দ্বাদশ সম্মেলন অনুষ্ঠিত

লুটপাট, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে বাম বিকল্প গড়ার আহ্বানে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) চট্টগ্রাম জেলা শাখার দ্বাদশ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সম্মেলনে অধ্যাপক অশোক সাহাকে সভাপতি, মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরকে সাধারণ সম্পাদক এবং নূরুচ্ছফা ভূঁইয়াকে সহকারি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে।

শুক্রবার (২৮ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম নগরীর চেরাগি চত্বরে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন সিপিবির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো. শাহআলম। এছাড়াও সিপিবির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড আবদুল্লাহ আল ক্বাফী রতন ও সদস্য কমরেড মৃণাল চৌধুরী অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য প্রদান করেন।

এসময় শাহআলম জাতীয় পতাকা এবং বিদায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন। সিপিবির সংস্কৃতি শাখার শিল্পীরা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম বলেন, আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোটের বাইরে বাম প্রগতিশীল বিকল্প শক্তি গড়ে তুলতে হবে।

তিনি বলেন, কমিউনিস্ট পার্টির লাল ঝান্ডা উপমহাদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের প্রাণপুরুষ কমরেড মনি সিং, কমরেড ফরহাদ আমাদের দিয়ে গেছেন। এই লাল পতাকাকে আমরা রাষ্ট্রক্ষমতায় নিয়ে যাব। আওয়ামী লীগ, বিএনপির নেতৃত্বাধীন দুই জোটের বাইরে বাম প্রগতিশীল বিকল্প গড়ে তুলব।

সিপিবির সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, আমাদের কমিউনিস্ট পার্টির এক শ বছরে এই দলের হাজারো কমরেড জীবন দিয়েছেন। অত্যাচার-নিপীড়নের বিরুদ্ধে লড়াই করে হাজারো কমরেড প্রাণ দিয়েছেন। লাখো কমরেড জেল, জুলুম, হুলিয়ার শিকার হয়েছেন। আমাদের কমরেডরা ব্রিটিশ তাড়াতে লড়াই করেছেন। বায়ান্নের ভাষা আন্দোলনে কমরেডরা বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখেছেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে ১৯ হাজার গেরিলা কমরেড বাংলাদেশকে স্বাধীন করতে অংশ নিয়েছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা সিপিবির সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা। উদ্বোধনী মঞ্চে সিপিবির কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ আল কাফী রতন ও সদস্য মৃণাল চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

দিনভর নগরীর মোমিন রোডে মৈত্রী ভবন মিলনায়তনে সাংগঠনিক অধিবেশনে ২১ সদস্যের চট্টগ্রাম জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.