চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলার নিন্দা জানিয়েছে সিপিবি

দুর্গাপূজার সমাপনী দিনে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী জে এম সেন হল পূজামণ্ডপে হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, চট্টগ্রাম জেলা কমিটি।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি, চট্টগ্রাম জেলা কমিটি’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কমরেড আব্দুল নবী ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অশোক সাহা এক বিবৃতিতে বলেছেন, দুর্গাপূজার শুরু থেকেই এবার দেশবাসী সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের নগ্নরূপ প্রত্যক্ষ করেছে। কুমিল্লায় একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জেরে সারাদেশে যেভাবে পূজামণ্ডপে হামলা, ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে তা দু:খজনক এবং এর নিন্দা জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই। ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িঘরে লুটপাটের ঘটনাও ঘটেছে। আমরা এসব ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, সর্বশেষ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী জে এম সেন হল পূজামণ্ডপে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে এবং আতঙ্কিত পূজার্থীরা যে পরিবেশে অনেকটা গোপনে প্রতিমা বিসর্জন দিতে বাধ্য হয়েছেন, তা নজিরবিহীন। চট্টগ্রামবাসী নিকট অতীতে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের এমন নগ্নরূপ দেখেনি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ধর্মান্ধদের প্রতিরোধে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। পুলিশের ভূমিকা আমাদের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ মনে হয়েছে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, সর্বোপরি চট্টগ্রামসহ দেশজুড়ে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীদের এমন তাণ্ডবের জন্য আমরা সরকারের ব্যর্থতার কথাও দেশবাসীকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে ক্রমাগত ধর্মান্ধ, মৌলবাদিদের সাথে আপস করেছে। তাদের প্রেসক্রিপশন মেনে পাঠ্যপুস্তক পরিবর্তন করেছে। মৌলবাদিরা বারবার সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের বাড়িঘর, উপসনালয়ে হামলা-লুটপাট চালালেও গত ১২ বছরে একটি ঘটনারও বিচার হয়নি। সুকৌশলে রাষ্ট্রের সাম্প্রদায়িকীকরণ করা হয়েছে এবং সেটা এখনও অব্যাহত আছে। এর ফলে, আমরা বলতে পারি- সরকার মৌলবাদিদের উত্থান এবং চলমান সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের দায় এড়াতে পারে না।

নেতৃবৃন্দ বাহাত্তরের সংবিধান, মুক্তিযুদ্ধের মূলনীতি প্রতিষ্ঠা এবং অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার জন্য সিপিবি লড়াই-সংগ্রাম অব্যাহত রাখবে বলে মত ব্যক্ত করেন।

নেতৃবৃন্দ চট্টগ্রামসহ সারাদেশে পূজামণ্ডপ ও বাড়িঘরে প্রত্যেকটি হামলার বিচার দাবি করছেন। একইসাথে কুমিল্লায় অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য দায়ীদের শনাক্ত করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানোর দাবি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.