কাল থেকে সাময়িকভাবে করোনার প্রথম ডোজ টিকাদান বন্ধ

করোনাভাইরাসের প্রথম ডোজের টিকাদান কর্মসূচি আগামীকাল সোমবার থেকে বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। মজুদ কমে আসায় এবং সরবরাহ নিয়ে অনিশ্চয়তা না কাটায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আজ (২৫ এপ্রিল) রোববার কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স কমিটির সদস্য সচিব লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. শামসুল হক স্বাক্ষরিত চিঠিতে সব জেলার সিভিল সার্জন, সিটি করপোরেশন প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে আগামীকাল থেকে টিকাদান কর্মসূচি বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আগামীকাল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রমের প্রথম ডোজের টিকাদান সাময়িকভাবে বন্ধ থাকবে।

উল্লেখ্য,

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশে ২৪শে এপ্রিল পর্যন্ত ৫৭ লাখ ৯৮ হাজার ৮৮০ জন প্রথম ডোজের টিকা নিয়েছেন। আর দ্বিতীয় ডোজের টিকা পেয়েছেন ২১ লাখ ৫৫ হাজার ২৯৬ জন।

টিকা গ্রহণের জন্য এ পর্যন্ত নিবন্ধন করেছেন ৭২ লাখ ৬ হাজার ৫৬৫ জন।

বাংলাদেশ এমন সময় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যখন ভারত টিকা রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় দেশটি এক গভীর সংকটে পড়েছে।

বেসরকারি সংস্থা বেক্সিমকোর মাধ্যমে ভারতের সেরাম ইন্সটিটিউটে তৈরি করা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রজেনেকার কোভিশিল্ড তিন কোটি ডোজ টিকা সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছিল সরকার। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি থেকে এখন পর্যন্ত মাত্র ৭০ লাখ ডোজ টিকা পাওয়া গেছে। আরও ৩২ লাখ টিকা সরকার পেয়েছে উপহার হিসাবে।

সেই হিসাবে বাংলাদেশের মোট এক কোটি ২ লাখ ডোজ টিকা পেয়েছে, যার একটি বড় অংশই দেয়া হয়ে গেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে প্রথম ডোজ টিকা দেয়া সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.