কানের অফিসিয়াল সিলেকশনে ‘রেহানা মারিয়াম নূর’

কান চলচ্চিত্র উৎসবের ‘আঁ সার্তে রিগা’ ক্যাটাগরির প্রথম ছবি ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সবার বিশেষ নজরে প্রথম থেকেই ছিল৷ কানের অফিশিয়াল সিলেকশনে প্রথম বাংলাদেশের সিনেমা৷

বুধবার ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের পরে হলজুড়ে তুমুল অভিবাদনে বোঝা গেল বোদ্ধারা অভিভূত৷

বিশ্লেষকরা বলছেন, আঁ সার্তে রিগা ক্যাটাগরিতে সাধারণত এমন সব চলচ্চিত্রকে নির্বাচিত করা হয়, যেগুলো একটু ভিন্ন চিন্তা নিয়ে তৈরি করা, যেগুলোর সুনির্দিষ্ট বার্তা রয়েছে৷ এই বিবেচনায় রেহানা মরিয়ম নূর দারুণভাবেই উৎরেছে৷

এই ক্যাটাগরিতে অন্য সিনেমাগুলোও বেশ শক্তিশালী, বিশেষ করে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের এক সৈনিকের সত্য ঘটনা অবলম্বনে তৈরি করা নির্মাতা আর্থার হারারির ‘অনোডা- টেন থাউজেন্ড নাইটস ইন দ্য জাঙ্গল’ সিনেমাটি এই ক্যাটাগরিতে খুবই শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী বলে বিবেচনা করা হচ্ছে৷

আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের লেখা ও পরিচালিত ছবিটি এবার কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের আঁ সার্তে রিগা পর্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে ইতিহাস গড়েছে৷

যার নামে ছবিটি, সেই রেহানা মরিয়ম নূর সিঙ্গেল মাদার৷ ৬ বছর বয়সী এক ফুটফুটে কন্যার মা৷ মেয়েকে একা বড় করা, বাবা, মা ও ভাইয়ের দেখাশোনা, খরচ জোগাড়- সবই করতে হয় তাকে৷ এমন মানুষকে দৃঢ়তো হতেই হয়৷ কিন্তু রেহানা কতটা অবিচল তা বোঝা যায় যখন তিনি তার স্বামীর দেয়া ঘড়ি সবসময় পরে থাকেন৷ মেডিক্যালে কলেজের এই শিক্ষকের জেদ প্রমাণ করতে গিয়ে পরিচালক দেখান, যে তিনি ছাত্রীর নকল ধরার জন্য গিয়ে বসে থাকেন তার পাশে৷ সফলও হন৷

গল্পের প্রেক্ষাপট তৈরি করতে গিয়ে এসব দেখান পরিচালক৷ আসল বিপত্তি আসে যখন একজন ছাত্রী আরেক শিক্ষকের কাছে যৌন নিপীড়িত হবার সময় ঘটনাটির একটি অংশ দেখে ফেলেন রেহানা৷ এরপর প্রতিকার চাইতে বারবার বললেও সেই ছাত্রী রাজি হচ্ছিলেন না৷ এরপর রেহানা নিজেই নিজেকে বানান ভিক্টিম৷ মূলত এই ঘটনাকে আবর্তিত করেই ছবিটি৷ অন্যায়ের প্রতিকার চাওয়া আর নিজের জেদ, দুই মিলে রেহানাকে দাঁড় করায় এক ভীষণ কঠিন পরিস্থিতিতে৷

সিনেমা শেষ হওয়ার পর অভিনেত্রী বাঁধন বলছিলেন তার চরিত্র গড়ে তোলার সমস্ত ক্রেডিট পরিচালক আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের৷ ক্রেডিট সাদ পাওয়ারই যোগ্য৷ তবে বাঁধন যা করে দেখিয়েছেন, অন্য কাউকে ক্রেডিট দিলেও তা কোনোভাবেই ম্লান হয় না৷

সিনেমা শুরুর আগে থেকেই দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করছিলেন বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা চলচ্চিত্র নির্মাতা, প্রযোজক, কলাকুশলী, সমালোচক ও সাংবাদিকেরা৷ শুরুর আগে উপস্থাপক মঞ্চে আমন্ত্রণ জানালেন পরিচালক আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদ এবং নাম ভূমিকায় অভিনয় করা আজমেরী হক বাঁধনকে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.