কমিউনিস্ট নেতা ডাক্তার এম এ করিমের মৃত্যুতে সিপিবি ও বাম জোটের শোক

বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, কমিউনিস্ট বিপ্লবী নেতা ও জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট (এনডিএফ) সভাপতি ডা. এমএ করিম-এর প্রয়াণে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) গভীর শোক প্রকাশ করেছে।

এদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের অন্যতম পুরাধা এই ব্যক্তিত্বের মৃত্যুতে বাম গণতান্ত্রিক জোট, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট, বাসদ, বাসদ (মার্কসবাদী, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টিসহ দেশের সকল বাম-গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল ও গণসংগঠন শোক ব্যক্ত করেছেন।

সিপিবি সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম এবং সাধারণ সম্পাদক মো. শাহ আলম এক বিবৃতিতে ডা. এমএ করিম-এর প্রয়াণে গভীর শোক এবং তাঁর রাজনৈতিক সহযোদ্ধা ও স্বজনদের প্রতি আন্তরিক সহমর্মিতা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ডা. এমএ করিম আমৃত্যু শোষণমুক্তির সংগ্রামে আত্মনিয়োজিত ছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে এদেশের বামপন্থী ও প্রগতিশীল আন্দোলন এবং সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী সংগ্রাম একজন একনিষ্ঠ নেতা হারালো।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, ডা. এমএ করিম এদেশের মানুষের মুক্তি সংগ্রামে সর্বদা স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

এদিকে বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ ও জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য সিপিবি সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম, বাসদ এর সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী কমরেড জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পদক কমরেড মোশরেফা মিশু, বাসদ (মার্কসবাদী)’র ভারপ্রাপ্ত সমন্বয়ক কমরেড ফখরুদ্দিন কবীর আতিক, ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী)’র সাধারণ সম্পাদক কমরেড ইকবাল কবির জাহিদ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক কমরেড হামিদুল হক এক যুক্ত বিবৃতিতে এনডিএফ এর সভাপতি ও সেবা পত্রিকার সম্পাদক বিশিষ্ট কমিউনিস্ট বিপ্লবী নেতা ডাক্তার এম এ করিমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন এবং তাঁর রাজনৈতিক সহযোদ্ধা ও পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ডা. এম এ করিম ছিলেন এদেশের কমিউনিস্ট আন্দোলনের পুরোধা ব্যক্তিত্ব। তিনি শোষিত, শ্রমজীবী মেহনতি মানুষের শোষণমুক্তির লক্ষ্যে আমৃত্যু সংগ্রাম করেছেন। তাঁর মৃত্যুতে বামপন্থি আন্দোলন একজন আপোষহীন অকুতোভয় সৈনিককে হারালো এবং বাংলাদেশের শ্রমিকশ্রেণি একজন অকৃত্রিম বন্ধুকে হারালো।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ ডা. এম এ করিমের অসমাপ্ত কাজ শোষণহীন সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম এগিয়ে নেয়ার জন্য সকল বামপন্থি নেতা কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.