কমরেড মণি সিংহের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি)’র সাবেক সভাপতি, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের লড়াকু সৈনিক, টংক আন্দোলনের মহানায়ক, মুক্তিযুদ্ধকালীন অস্থায়ী সরকারের উপদেষ্টা, আজীবন বিপ্লবী কমরেড মণি সিংহের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

১৯৯০ সালের এই দিনে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

কমরেড মণি সিংহের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে সিপিবিসহ বিভিন্ন সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি পালন করেছে।

কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে পোস্তগোলা শশ্মানঘাটে কমরেড মণি সিংহের স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। সিপিবি ছাড়াও বিভিন্ন গণসংগঠন ও অপরাপর সংগঠসমূহ কমরেড মণি সিংহের স্মৃতিস্তম্ভে শ্রদ্ধা জানান।

সকালে পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কমরেড মণি সিংহের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

এছাড়া কমরেড মণি সিংহ স্মরণে আজ বিকেল ৫টায় সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সিপিবি’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম এক বিবৃতিতে কমরেড মণি সিংহের ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আজীবন ত্যাগের মধ্য দিয়ে কমরেড মণি সিংহ এ দেশে আদর্শিক রাজনীতির যে বীজ বপন করেছিলেন, তার ভিত্তিতে শোষণমুক্তির সংগ্রাম অগ্রসর করতে হবে। কমরেড মণি সিংহের স্বপ্নের সমাজতান্ত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়েই তাঁর প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শন করতে হবে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের বর্তমান সংকট কাটাতে রাজনীতির আদর্শবাদী ধারাকে অগ্রসর করতে হবে। কমরেড মণি সিংহের আদর্শকে শক্তিশালী করা ছাড়া মানুষের মুক্তি ঘটবে না।