কক্সবাজারে পাহাড় ধস; এক পরিবারের ৫ জনসহ ৬ মৃত্যু

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নে পাহাড় ধসে একই পরিবারের ৫ জনসহ ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এরা সবাই শিশু। তাছাড়া আহত হয়েছে আরও কয়েকজন।

বুধবার ভোররাত একটা থেকে দুইটার মধ্যে এ ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

নিহতেরা হলেন- হ্নীলা ইউনিয়নের পানখালি ভিলেজার পাড়ার বাসিন্দা সৈয়দ আলমের ছেলে আব্দুস শুক্কুর (১৬), মো। জুবায়ের (১২), আব্দুল লতিফ (১০), মেয়ে কোহিনূর আক্তার (১৪) ও জয়নাব আক্তার (৮) ।

মাটিচাপায় আহত আরও কয়েকজনকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

টানা বৃষ্টিপাতের কারণে পাহাড় ধসের এই ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

এর আগে মঙ্গলবারও, কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার বালুখালি ১০ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরে পাহাড় ধসে অন্তত পাঁচ জন মারা যায়। তারাও সবাই শিশু।

গত দু’দিন ধরে সেখানেও অতিমাত্রায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

এর আগে ২০১৮ সালে বেসরকারি একটি সংস্থা জেলা উপকূলীয় পল্লী উন্নয়ন পরিষদ জানিয়েছিল যে, কক্সবাজারের বিভিন্ন এলাকায় প্রায় আড়াই লাখ পরিবার পাহাড়-ধসের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।

উল্লেখ্য, জেলাটির মোট আটটি উপজেলায় পাহাড় ধসের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি বলেও জানানো হয়েছিল। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে টেকনাফ, উখিয়া, কক্সবাজার সদর, রামু, চকোরিয়া ও পেকুয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.