এশিয়ার নোবেলখ্যাত ‘ম্যাগসেসাই’ পেলেন বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী

এশিয়ার নোবেলখ্যাত ম্যাগসেসাই পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশের বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী।

আজ (৩১ আগস্ট) মঙ্গল্বার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১২টার দিকে ফিলিপাইন থেকে র‌্যামন ম্যাগসেসাই পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী কলেরার টিকা নিয়ে গবেষণা ও সাশ্রয়ী দামে টিকা সহজলভ্য করে লাখো প্রাণ রক্ষায় কাজ করেছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার টিকাবিষয়ক বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ছিলেন তিনি।

র‌্যামন ম্যাগসেসাই পুরস্কার ঘোষণার সময় কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘লাখো মানুষের উপকারে টিকার উন্নয়নে তাঁর নিবেদিত ভূমিকার জন্য’ এই পুরস্কার দেওয়া হলো।

বিজ্ঞানী ফেরদৌসী কাদরী ম্যাগসেসাই কমিটির কাছে একটি ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘আমি আনন্দিত ও সম্মানিত বোধ করছি। র‌্যামন ম্যাসসেসাইকে এ জন্য ধন্যবাদ জানাই। এই পুরস্কার আমি বাংলাদেশ, আমার জন্মভূমির প্রতি উৎসর্গ করলাম। সেই সঙ্গে আমার প্রতিষ্ঠান আইসিডিডিআরবিকে উৎসর্গ করছি। এই প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে আমার কাজ এগিয়ে নিতে সহযোগিতা করেছে।’

উল্লেখ্য, ফিলিপাইনের সপ্তম প্রেসিডেন্ট র‍্যামন ম্যাগসেসাইয়ের স্মরণে ১৯৫৮ সাল থেকে এ পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে। এশিয়ার দেশগুলোতে নিঃস্বার্থভাবে কাজ করা ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানকে প্রতি বছর সন্মানজনক এ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

আগামী ২৮ নভেম্বর ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় র‍্যামন ম্যাগসেসাই সেন্টারে আনুষ্ঠানিকভাবে এ বছরের মনোনীতদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে। তারা সবাই একটি সনদ, একটি পদক ও নগদ অর্থ পাবেন।

প্রসঙ্গত, উন্নয়নশীল দেশগুলোতে শিশুদের সংক্রামক রোগ প্রতিরোধে টিকাদান কর্মসূচিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য এর আগে ২০২০ সালে ল’রিয়েল-ইউনেসকো ফর ওমেন ইন সায়েন্স অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন ফেরদৌসী কাদরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.