এনু-রূপন ৬ দিনের রিমান্ডে

সোনা ও বিদেশি মুদ্রা উদ্ধারের মামলায় গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের বহিস্কৃত সভাপতি এনামুল হক এনু ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রূপন ভূঁইয়ার ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২ মার্চ) তাদের দুই ভাইকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে ১০ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করে ওয়ারী থানা পুলিশ। পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শুনানি শেষে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালত এই আদেশ দেন।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর পুরান ঢাকার ওয়ারীতে এনামুল হক ভূঁইয়ার বাসায় তল্লাশি চালিয়ে ২৬ কোটি টাকাসহ বিপুল অঙ্কের বৈদেশিক মুদ্রা এবং সাড়ে ১২ কেজি সোনা জব্দ করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। এই ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে এনামুল হক ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে রাজধানীর ওয়ারী থানায় একটি মামলা হয়।

মামলার এজাহারে বলা হয়, এনামুল ও রুপন মতিঝিলের বিভিন্ন ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থেকে দীর্ঘদিন ধরে কোটি কোটি টাকা অবৈধভাবে উপার্জন করে আসছিলেন। ওই অবৈধ টাকার একাংশ দিয়ে আসামিরা বিভিন্ন সময়ে সোনা কিনে তাদের বাসায় জমা রাখেন। ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান পরিচালিত হলে এই অপকর্ম আড়াল করার জন্য টাকা ব্যাংকে না রেখে বাসার লোহার গোপন লকারে রেখেছিলেন।

ওয়ারী থানার পুলিশ ঢাকার আদালতে এক প্রতিবেদন দিয়ে বলেন, আসামিদের বাসা থেকে জব্দ করা সোনার বৈধ কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেননি তারা। এই ঘটনার রহস্য উদ্‌ঘাটনের জন্য, এই ঘটনার সঙ্গে আর কেউ জড়িত আছেন কিনা জানার জন্য আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা জরুরি।

এর আগে গত বছরের ২৪ সেপ্টেম্বর এনামুল ও রূপনের বাসায় এবং তাদের দুই কর্মচারীর বাসায় অভিযান চালায় র‍্যাব। সেখান থেকে ৫ কোটি টাকা এবং সাড়ে ৭ কেজি সোনা উদ্ধার করা হয়। এরপর সূত্রাপুর ও গেন্ডারিয়া থানায় তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা হয়। একাধিকবার অভিযান চালিয়েও এত দিন তাদের ধরা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.