এক দিনে ১৬৬ মৃত্যু; ১৭ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন

দেশে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমবর্ধমান হারে বাড়ার সময়ে ১৭ দিন পরে মৃত্যুর সংখ্যা কিছুটা কমেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে আজ শুক্রবার সকাল আটটা পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ১৬৬ জন। একই সময়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আগের দিনের তুলনায় নমুনা পরীক্ষা কিছুটা বেড়েছে। ফলে নতুন রোগী শনাক্তও আগের দিনের চেয়ে বেশি হয়েছে, ৬ হাজার ৩৬৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে আজ এসব তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, দেশে করোনার ডেলটা ধরনের দাপটের মধ্যে গত ৭ জুলাই প্রথম দৈনিক মৃত্যু ২০০ ছাড়ায়। এরপর থেকে গত ২০ জুলাই পর্যন্ত অধিকাংশ দিন মৃত্যু ছিল ২০০-এর ওপরে। গত ১৯ জুলাই একদিনে সর্বোচ্চ ২৩১ জনের মৃত্যুর খবর আসে।

সেখানে গত তিন দিন ধরে মৃত্যু ২০০ এর নিচে রয়েছে। আগের ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছিল ১৮৭ জনের, তার আগের দিন মৃত্যু হয় ১৭৩ জনের। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টার চেয়ে কম মৃত্যুর খবর এসেছিল গত ৬ জুলাই, ১৬৩ জনের।

সব মিলিয়ে দেশে এখন পর্যন্ত করোনায় মোট মৃত্যু হয়েছে ১৮ হাজার ৮৫১ জনের। করোনা সংক্রমিত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৪৬ হাজার ৫৬৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৯ লাখ ৭৮ হাজার ৬১৬ জন। সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৬ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সবচেয়ে বেশি ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। খুলনা ও চট্টগ্রাম বিভাগে মারা গেছেন ৩৩ জন করে। বাকিরা অন্যান্য বিভাগের। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা যাওয়া ১৬৬ জনের মধ্যে ৯৫ জন পুরুষ, নারী ৭১ জন।

দেশে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহ সর্বাত্মক বিধিনিষেধ পালন করা হয়। এ সময় সব ধরনের অফিসের পাশাপাশি গণপরিবহন চলাচলও বন্ধ রাখা হয়। ঈদুল আজহা উপলক্ষে এই বিধিনিষেধ আট দিনের জন্য শিথিল করা হয়েছিল। সে সময় শেষ হওয়ায় আজ শুক্রবার সকাল থেকে আবার কঠোর বিধিনিষেধ শুরু হয়েছে। দুই সপ্তাহ ধরে এই লকডাউন চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.