উপাচার্য ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে কালো পতাকা প্রদর্শন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’র ব্যানারে আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। রবিবার বেলা দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্ত্বর থেকে কালোপতাকা ও বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে পুরাতন কলা ভবনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের র‌্যালি শুরুর স্থলে যান আন্দোলনকারীরা। পরবর্তীতে সেখান থেকে আবারো ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়কসমূহ প্রদক্ষিণ করে অমর একুশ পাদদেশে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেন তারা।


সমাবেশে আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপাচার্যেও অপসারণের দাবি জানান। এছাড়া উপাচার্যের মদদে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে তদন্তের মাধ্যমে উপাচার্যকে রাষ্ট্রীয় আইনে বিচারের মুখোমুখি করার দাবি জানান তারা।

প্রতিবাদ সমাবেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগরের সংগঠক অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে নিয়মতান্ত্রিকভাবে আন্দোলন করে আসছি। এই প্রকল্পের টাকা থেকে দুর্নীতি যদি না হবে তাহলে উপাচার্য কেন এত বিচলিত, উপাচার্য কেন শিক্ষার্থীদের ওপরে হামলার ইন্ধন দিচ্ছেন, কেন শিক্ষকদের ফোনালাপ ফাঁস করছেন ?

দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগরের সংগঠক ও ছাত্র ইউনিয়ন বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রনি বলেন, কোনো সন্ত্রাসের ইন্ধনদাতা ব্যক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে থাকতে পারেন না। অতীতের যেসব উপাচার্য সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন, শিক্ষার্থীদের ওপরে হামলা মামলা করেছেন তাদের পরিণতি ভালো হয়নি। অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের পরিণতিও ভালো হবে না বলে হুঁশিয়ারি করেন তিনি। এদিকে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ার সামনে উপাচার্যের দুর্নীতি, অসদাচরণ ও বিভিন্ন অনিয়মের তথ্যাদি প্রদর্শন করেন আন্দোলনকারীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.