ইরানের প্রেসিডেন্ট হওয়ার পথে অতি-রক্ষণশীল এব্রাহিম রাইসি

ইরানের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন দেশটির বিচার বিভাগের প্রধান এবং মতাদর্শিকভাবে অতি-রক্ষণশীল হিসেবে পরিচিত এব্রাহিম রাইসি।

প্রথম দফার নির্বাচনে বিপুল ভোটে এগিয়ে থাকায় ইতোমধ্যেই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা পরাজয় মেনে নিয়েছেন। তিনি ৬২ শতাংশ ভোট পেয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷

বিবিসির এক প্রতিবেদনে আজ এসব তথ্য জানানো হয়।

ইতোমধ্যে উত্তরসূরীকে স্বাগত জানিয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি৷ টানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকায় তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি৷

রাইসির প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মোহসেন রেজাই ও আমিরহোসেন ঘাজিজাদেহ হাশেমি পরাজয় মেনে নিয়ে রাইসিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন৷

নির্বাচনে ভোটার ছিলেন প্রায় ছয় কোটি৷ এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন প্রায় ৯০ শতাংশ৷ ৬২ শতাংশ ভোট পেয়েছেন রাইসি৷ তিনি আগস্টে ক্ষমতায় বসতে যাচ্ছেন৷

উল্লেখ্য, ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতোল্লাহ আলী খামেনির পর প্রেসিডেন্ট দেশটির দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি।

ইরানের আভ্যন্তরীণ নীতিমালা ও পররাষ্ট্রনীতির বিষয়ে প্রেসিডেন্টের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। তবে সুপ্রিম নেতা আয়াতোল্লাহ আলী খামেনি রাষ্ট্রীয় বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিয়ে থাকেন।

প্রসঙ্গত, রাইসির ওপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে এবং অতীতে রাজনৈতিক বন্দীদের মৃত্যুদণ্ডের সঙ্গেও তার সম্পর্ক রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.