আহসানউল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্র ইউনিয়নের সংহতি

আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (AUST) দুর্নীতিবাজ, অবৈধ ভিসির অপসারণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের সঙ্গে সংহতি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ।

গত ৩ দিন ধরে AUST-এর শিক্ষার্থীরা ভিসির অপসারণের দাবিতে এবং ভিসি জোরপূর্বক যে ১০ জন সিনিয়র শিক্ষককে ইউনিভার্সিটি থেকে বহিষ্কারসহ টিউশন ফি বৃদ্ধির যে পাঁয়তারা করছে, এর বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তুলেছে এবং ৯ দফা দাবি উত্থাপন করেছে শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) এক যৌথ বিবৃতিতে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি তামজিদ হায়দার এবং সাধারণ সম্পাদক হিমাদ্রি শেখর নন্দী আহসানউল্লাহর শিক্ষার্থীদের আন্দোলন এবং ৯ দফা দাবির প্রতি সংহতি প্রকাশ করেন।

নেতৃবৃন্দ আহসানউল্লাহর সেই দুর্নীতিবাজ অবৈধ ভিসি অপসারণ চান এবং টিউশন ফি বৃদ্ধির যে পাঁয়তারা চলছে সে সমস্ত কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে ছাত্র ইউনিয়ন দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবেন বলে আশা ব্যাক্ত করেন।

নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে রাজনীতি নিষিদ্ধের জুজু দেখিয়ে হরহামেশাই শিক্ষার্থীদের অধিকার বঞ্চিত করে রাখা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে জবাবদিহীতার কোন জায়গাই নেই। অপরপক্ষে কোন আন্দোলনে অংশগ্রহণের জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রশাসনের কাছে হরহামেশাই চোখ রাঙানির শিকার হতে হয়। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে এক প্রকার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হচ্ছে বলে নেতৃবৃন্দ মনে করেন। কারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দফায় দফায় টিউশন ফি বৃদ্ধি, আবাসন সঙ্কট, ক্যান্টিনে বেশি টাকায় নিম্নমানের খাবারই তার প্রমাণ। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বঞ্চিত হওয়া এবং তার বিরুদ্ধে আহসাউল্লাহর শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদই প্রমাণ করে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর প্রশাসনের স্বেচ্ছাচারিতা।

নেতৃবৃন্দ বলেন, অবিলম্বে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলোতে দফায় দফায় টিউশন ফি বৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের মুক্ত জ্ঞান চর্চা এবং প্রগতিশীল সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক চর্চা নিশ্চিত করতে হবে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে সকল ক্যাম্পাসে ছাত্র সংসদ এবং নির্বাচিত ছাত্র প্রতিনিধি নিশ্চিত করতে হবে। ক্যাম্পাসে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মোকাবেলার লক্ষ্যে স্বাধীনতার পক্ষে সকল প্রগতিশীল রাজনৈতিক দলের প্রভাব মুক্ত ছাত্র সংগঠনের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে দিতে হবে। প্রত্যেক ক্যাম্পাসে গবেষণা খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধি করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, অবিলম্বে আহসানউল্লাহসহ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ দুর্বার শিক্ষা আন্দোলন গড়ে তুলবে এবং আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.