অস্কার ২০২১: সেরা সিনেমা ‘নোমাডল্যান্ড’

চীনা পরিচালক ক্লোয়ি ঝাওয়ের ‘নোম্যাডল্যান্ড’ চলতি বছরের অস্কার আসরে সেরা সিনেমার পুরস্কার লাভ করেছে।

গতকাল (২৬ এপ্রিল) সোমবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

সংবাদ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গতকাল রোববার অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ৯৩তম আসরে আমেরিকার পশ্চিমাঞ্চলের দারিদ্র-পীড়িত মানুষের জীবনযাপন নিয়ে তৈরি ‘নোম্যাডল্যান্ড’ সেরা ছবির পুরস্কার জিতে নিয়েছে।

এই চলচ্চিত্রটি ২০১৭ সালে প্রকাশিত জেসিকা ব্রুডের’র একটি ননফিকশন বইয়ের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে।

এছাড়াও নোম্যাডল্যান্ডের জন্যই সেরা চলচ্চিত্র পরিচালক হয়েছেন ক্লোয়ি ঝাও। অশ্বেতাঙ্গ কোনো নারী পরিচালকের এটাই প্রথম অস্কার, শুধু নারী হিসেবে দ্বিতীয়।

সেই সঙ্গে নোম্যাডল্যান্ডে অভিনয়ের জন্য এবার সেরা অভিনেত্রী হিসেবে অস্কার জিতেছেন ফ্রান্সিস ম্যাকডোম্যান্ড। এটা তার তৃতীয় অস্কার।

সেরা অভিনেতা হিসেবে অস্কার জিতেছেন অশীতিপর অভিনেতা স্যার অ্যান্থনি হপকিন্স। দ্য ফাদার চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি এই পুরস্কার পেয়েছেন।

ড্যানিয়েল কালুইয়া সেরা সহ-অভিনেতার পুরস্কার জিতেছেন জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মেসিয়াহর জন্য। এই ছবির সব পাত্র-পাত্রী কলাকুশলী কৃষ্ণাঙ্গ, অস্কারের ইতিহাসে যা প্রথম।

অন্য ব্রিটিশ অস্কারজয়ীর মধ্যে রয়েছেন সেরা চিত্রনাট্যের জন্য পুরস্কৃত এমারেল্ড ফেনেল।

সেরা সহ-অভিনেত্রী হয়েছেন ইউ-জুং ইউন। অভিনয়ের জন্য দক্ষিণ কোরিয়ার কোনো শিল্পীর এটাই প্রথম অস্কার জয়।

সেরা অ্যানিম্যাটেড চলচ্চিত্র ও সেরা মৌলিক সংগীতের জন্য অস্কার পেয়েছে ‘সোল’।

এবারের অস্কার বর্ণ বৈচিত্র্যের দিক থেকে ছিল সেরা। বিভিন্ন বিভাগে মনোনয়নীত ২০ জনের মধ্যে নয় জন ছিলেন বিভিন্ন বর্ণের। শ্বেতাঙ্গ বাদে অন্য বর্ণের শিল্পীদের এত মনোনয়ন পাওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম।

সামাজিক দূরত্ব রেখে বসেছিলেন ৯৩ তম অস্কারের মনোনীতরা। তাই পুরস্কার ঘোষণার পর নেই আপনজনকে জড়িয়ে ধরার উচ্ছ্বাস। জাতপাত, গায়ের রং নিয়ে যে আর মাথাব্যথা নেই অস্কারের, মনোনয়নের পর সেই প্রমাণ পাওয়া গেছে অস্কারের ওয়াচ পার্টি আর মূল আয়োজনেও। মনোনয়ন আর বিজয়ী—সবদিক থেকেই সর্বকালের সবচেয়ে বৈচিত্র্যময় মনোনয়নের তালিকা এটি।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক এবারের অস্কার বিজয়ীদের-

সেরা সিনেমা: নোম্যাডল্যান্ড

সেরা পরিচালক: ক্লোয়ি ঝাও (নোম্যাডল্যান্ড)

সেরা অভিনেতা: অ্যান্থনি হপকিন্স (দ্য ফাদার)

সেরা অভিনেত্রী: ফ্রান্সিস ম্যাকডোরম্যান্ড (নোম্যাডল্যান্ড)

সেরা সহ-অভিনেতা: ড্যানিয়েল কালুইয়া (জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মোসিয়েহ)

সেরা সহ-অভিনেত্রী: ইয়া-জাং উন (মিনারি)

সেরা মৌলিক গান: ফাইট ফর ইউ (জুডাস অ্যান্ড দ্য ব্ল্যাক মোসিয়েহ)

সেরা এনিমেটেড সিনেমা: সোল

সেরা রূপসজ্জা ও কেশসজ্জা: মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম

ভিজ্যুয়াল ইফেক্ট: টেনেট

সিনেমাটোগ্রাফি: মাঙ্ক

সম্পাদনা: সাউন্ড অব মেটাল

প্রোডাকশন ডিজাইন: মাঙ্ক

শব্দ: সাউন্ড অব মেটাল

সেরা আন্তর্জাতিক সিনেমা: অ্যানাদার রাউন্ড (ডেনমার্ক)

সেরা প্রামাণ্যচিত্র: কোলেট

প্রামাণ্যচিত্র ফিচার: মাই অক্টোপাস টিচার

লাইভ অ্যাকশন স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র: টু ডিসট্যান্ট স্ট্রেঞ্জার্স

অ্যানিমেটেড স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র: ইফ এনিথিং হ্যাপেনস, আই লাভ ইউ

সেরা মৌলিক চিত্রনাট্য: প্রমিজিং ইয়াং ওম্যান

সেরা অ্যাডাপ্টেড চিত্রনাট্য: দ্য ট্রায়াল অব শিকাগো সেভেন

অরিজিনাল স্কোর: সোল

কস্টিউম ডিজাইন: মা রেইনি’স ব্ল্যাক বটম

Leave a Reply

Your email address will not be published.